Home / বাংলাদেশ / ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ৪ ডাকাত ও মাদক ব্যবসায়ী নিহত

‘বন্দুকযুদ্ধে’ ৪ ডাকাত ও মাদক ব্যবসায়ী নিহত

দেশের চার জেলায় পুলিশ ও র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুই ডাকাত ও দুই মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন। এর মধ্যে নারায়ণগঞ্জ ও নাটোরে দুই মাদক ব্যবসায়ী এবং চাঁপাইনবাবগঞ্জ ও নড়াইলে দুই ডাকাত নিহত হয়েছেন।
আরটিভি অনলাইনের প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-
নারায়ণগঞ্জ: জেলার সোনারগাঁ উপজেলায় মাদকবিরোধী অভিযানে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ এক মাদক বিক্রেতা নিহত হয়েছেন। এসময় আহত হয়েছেন র‌্যাবের দুই সদস্য।
মঙ্গলবার ভোরে উপজেলার পিরোজপুরের আগমন সিএনজি স্টেশনের পাশে এ ঘটনা ঘটে।
নিহত মাদক ব্যবসায়ীর নাম আলমগীর। আহত র‌্যাব সদস্যরা হলেন হাবিলদার হাবিবুর রহমান ও কনস্টেবল মিজান তালুকদার।
র‌্যাব-১১ এর সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) শেখ বিল্লাল হোসেন জানান, মাদকবিরোধী নিয়মিত অভিযানের সময় আগমন সিএনজি স্টেশনের পাশ থেকে আলমগীর ও তার সহযোগীরা র‌্যাবকে লক্ষ্য করে গুলি করে। র‌্যাবও পাল্টা গুলি করলে ঘটনাস্থলেই আলমগীরের মৃত্যু হয়। এসময় ঘটনাস্থল থেকে একটি বিদেশি পিস্তল, দুই রাউন্ড গুলি ও ১৫শ’ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে।
আলমগীরের নামে বিভিন্ন থানায় ১৯টি মামলা রয়েছে। এরমধ্যে ১০টি মাদক মামলা বলেও জানান পুলিশ সুপার শেখ বিল্লাল।
নাটোর: জেলার লালপুর উপজেলায় র‌্যাবের সঙ্গে মাদক ব্যবসায়ীদের গুলি বিনিময়ের ঘটনায় এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন। এসময় আহত হয়েছেন র‌্যাবের দুই সদস্য। তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।
ঘটনাস্থল থেকে একটি বিদেশি পিস্তল, দুই রাউন্ড গুলি ভর্তি একটি ম্যাগাজিন, গুলির খালি খোসা ও ফেনসিডিল জব্দ করা হয়েছে।
সোমবার দিনগত রাত দুইটা ১০ মিনিটের দিকে উপজেলার বিজয়পুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
নিহত মাদক ব্যবসায়ীর নাম আহাদুল (৩৮)। তিনি উপজেলার কাজিপাড়া গ্রামের মোমিন আলীর ছেলে।
র‌্যাব-৫ সিপিসি-২ এর কমান্ডার মেজর শিবলী মোস্তফা আরটিভি অনলাইনকে জানান, নিয়মিত টহলের অংশ হিসেবে র‌্যাবের একটি দল লালপুর উপজেলার গোপালপুর রেলগেট এলাকায় অবস্থান করছিল। এসময় লালপুর হতে বনপাড়াগামী একটি মোটরসাইকেলে দুই ব্যক্তি সন্দেহজনকভাবে চলাচল করতে দেখলে র‌্যাব সদস্যরা তাদের পিছু নেয়। পরে মোটরসাইকেল আরোহীরা গোপালপুর হতে ধানাইদহগামী রাস্তার বিজয়পুর এলাকায় পাকা রাস্তার পূর্ব পাশের একটি আখক্ষেতে পূর্ব থেকে অবস্থানকারী দুই ব্যক্তির সঙ্গে একটি বস্তা বদল করে। এসময় র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে মোটরসাইকেল আরোহীরা পালিয়ে যায়। আখক্ষেতে থাকা দুই ব্যক্তিকে র‌্যাব আত্মসমর্পণের নির্দেশ দিলে তারাও পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। এসময় র‌্যাবের টহল দল তাদের ধাওয়া করলে মাদক ব্যবসায়ীরা গুলি নিক্ষেপ শুরু করে। পরে র‌্যাবও পাল্টা গুলি করলে একজনকে আহত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখা যায়। পরে তাকে উদ্ধার করে উপজেলা সাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত বলে জানান।
নিহত আহাদুলের নামে লালপুর থানায় মাদক ও চোরাচালানসহ আটটি মামলা রয়েছে। তিনি নাটোর জেলার অন্যতম শীর্ষ মাদক ব্যাবসায়ী হিসেবে পরিচিত।
চাঁপাইনবাবগঞ্জ: জেলার শিবগঞ্জ উপজেলার মোবারকপুর ইউনিয়নের ত্রিমোহনী এলাকায় সোমবার রাত দেড়টার দিকে র‌্যাবের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে একজন নিহত হয়েছেন। র‌্যাবের দাবি নিহত ব্যক্তি ডাকাত দলের সদস্য।
র‌্যাব-৫ এর ডেপুটি কোম্পানি কমান্ডার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবুল খায়ের জানান, নিয়মিত মাদকবিরোধী অভিযানের অংশ হিসেবে র‌্যাব সদস্যরা টহলে ছিলেন। শিবগঞ্জের মোবারকপুর ইউনিয়নের ত্রিমোহনী এলাকায় ডাকাত সদস্যরা র‌্যাবের গাড়ি আটকায়। প্রথমে র‌্যাবের গাড়ি বুঝতে পারেনি। পরে বুঝতে পেরে গাড়িকে লক্ষ্য করে গুলি ছোঁড়ে। র‌্যাবও পাল্টা গুলি করে।
একপর্যায়ে অন্যরা পালিয়ে গেলেও একজনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পাওয়া যায়। তাকে উদ্ধার করে শিবগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে চিকিৎসকরা মৃত ঘোষণা করেন। তার পরিচয় নিশ্চিত হওয়ার চেষ্টা চলছে।
তিনি আরও জানান, ঘটনাস্থল থেকে একটি পিস্তল, চার রাউন্ড গুলি, চারটি হাসুয়া, রশি উদ্ধার করা হয়েছে।
নড়াইল: জেলার লোহাগড়া উপজেলায় পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ অজ্ঞাতনামা এক ডাকাত নিহত হয়েছেন।
সোমবার রাত তিনটার দিকে উপজেলার কচুবাড়িয়া এলাকায় এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ একটি ওয়ান স্যুটারগান, দুই রাউন্ড গুলি, দুটি দা ও একটি হাতুড়ি উদ্ধার করেছে।
আহত হয়েছেন ৪ পুলিশ সদস্য। তারা হলেন লোহাগড়া থানার এসআই মাহফুজুল হাসান, এএসআই প্রলয় চক্রবর্তী, কনস্টেবল মুরাদ ও টিটু। তাদের লোহাগড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।
লোহাগড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) প্রবীর কুমার বিশ্বাস আরটিভি অনলাইনকে জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশ জানতে পারে কচুবাড়িয়ার পশ্চিম পাড়ার গৌরাঙ্গ দত্তের বাঁশঝাড় এলাকায় ১০-১২ জনের ডাকাত দল ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছিল।
পুলিশ সেখানে যাওয়ার পর ডাকাত দলের সদস্যরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি করে। আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়।
উভয়পক্ষের মধ্যে গুলি বিনিময়ের একপর্যায়ে ডকাত দলের সদস্যরা পূর্বদিকে পালিয়ে যায়। গোলাগুলির শব্দে এলাকাবাসী হাজির হলে তাদের নিয়ে বাগানে তল্লাশিকালে গুলিবিদ্ধ অজ্ঞাতনামা এক ডাকাতকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত বলে জানান। নিহত ডাকাতের পরিচয় এখনও পাওয়া যায়নি।

About News Desk

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *