Home / জাতীয় / আগামী মৌসুমে মিলারদের কাছ থেকে ধান কেনা হবে না- কৃষিমন্ত্রী

আগামী মৌসুমে মিলারদের কাছ থেকে ধান কেনা হবে না- কৃষিমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক||

আগামী মৌসুমে মিলারদের কাছ থেকে ধান কেনা হবে না বলে সাফ জানালেন কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক। প্রকৃত কৃষকদের কাছ থেকে ধান সংগ্রহ মঙ্গলবার রাজধানীর খামারবাড়িতে কৃষিমন্ত্রণালয়ের এক সভায় কৃষকের কাছে না পেয়ে বাধ্য হয়ে অন্যদের কাছ থেকে ধান কিনছে সরকার জানালেন খাদ্যমন্ত্রী।

আগামী মৌসুমে ধানের নায্যমূল্য নিশ্চিত করতে কমিটি গঠন করবে সরকার। ও প্রক্রিয়াকরণ, মিলারদের মাধ্যমে ক্রাশিং ও সংরক্ষণ এবং চাল রপ্তানির বিষয়ে কাজ করবে এই কমিটি। মঙ্গলবার (৩০ জুলাই) রাজধানীর খামারবাড়িতে কৃষিমন্ত্রণালয়ের এক সভায় একথা জানান কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক। সভায় খাদ্যমন্ত্রী দাবি করেন, ক্ষুদ্র কৃষকের কাছে ধান পাওয়া যাচ্ছে না। ফলে চারলাখ টন লক্ষ্যমাত্রার বিপরীতে বাধ্য হয়ে মাঝারি ও বড় কৃষকের কাছ এ পর্যন্ত মাত্র দুইলাখ টন ধান সংগ্রহ করা গেছে বলেও জানান মন্ত্রী।গেল বোরো মৌসুমে ধানের নায্যমূল্য না পেয়ে দেশের বিভিন্ন স্থানে রাস্তায় ধান ছিটিয়ে প্রতিবাদ করেছে কৃষক। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে সরাসরি কৃষকের কাছ থেকে ধান কেনার ঘোষণা দেয় সরকার। যদিও প্রান্তিক কৃষক তার সুফল পেয়েছে সামান্যই।এ অবস্থায় আগামী মৌসুমে কৃষক যাতে ধানের নায্যমূল্য পায়, তা নিশ্চিত করতে খাদ্য মন্ত্রণালয়, মিলমালিক ও চাল রপ্তানিকারক নিয়ে বৈঠকে বসে কৃষি মন্ত্রণালয়। সভায় মিল মালিকরা দাবি করেন, অতিরিক্ত চাল আমদানির কারণেই ধানের দাম কমে গেছে। এসময় কৃষকের পরিবর্তে তাদের কাছ থেকে ধান কেনার প্রস্তাব দেন তারা।তবে মিলমালিক নয়; তালিকা ধরে প্রকৃত কৃষকদের কাছ থেকে সরাসরি ধান সংগ্রহ করা হবে বলে সাফ জানান কৃষিমন্ত্রী। সভায় ধানের উৎপাদন খরচ কমাতে কৃষি যন্ত্রপাতিতে ভতুর্কি বাড়ানো’সহ আমন ও বোরো মৌসুমে বাড়তি প্রণোদনা দেয়ার প্রস্তাব করেন খাদ্যমন্ত্রী।সভায় কৃষিমন্ত্রী জানান বাণিজ্যমন্ত্রণালয়ের অনুমোদন পাওয়ায় বর্তমানে দুই লাখ টন চাল রপ্তানি করবে সরকার। তবে চিকন চালের অভ্যন্তরীণ চাহিদা থাকায়, চিকনের পরিবর্তে মোটা চাল রপ্তানির পরামর্শ দিয়েছেন মিলমালিকরা।

About News Desk

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *