Breaking News
Home / এক্সক্লুসিভ / বৈশ্বিক মহামারি করোনা ভাইরাসে আর্ত মানবতার সেবায় ঢাকা মহানগর দক্ষিন যুবলীগ

বৈশ্বিক মহামারি করোনা ভাইরাসে আর্ত মানবতার সেবায় ঢাকা মহানগর দক্ষিন যুবলীগ

বৈশ্বিক মহামারি করোনা ভাইরাসে আর্ত মানবতার সেবায় ঢাকা মহানগর দক্ষিন যুবলীগ।

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার নির্দেশে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের চেয়ারম্যন প্রফেসর শেখ ফজলে শামস পরশ ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ মাইনুল হোসেন খাঁন নিখিল এর নেতৃত্বে ঢাকা মহানগর দক্ষিন যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক গাজী সারোয়ার হোসেন বাবু ব্যাক্তিগত উদ্যোগে নিজস্ব অর্থায়নে গতকাল বৃহস্পতিবার রাজধানীর সূত্রাপুর ও যাত্রাবাড়ির বিভিন্ন এলাকায় দলীয় নিম্নবিত্ত ১০০ কর্মীকে প্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী উপহার দেন।এবং ২০০ মধ্যবিত্ত, অসহায় মানুষের মাঝে ও ৫০ জন প্রতিবন্ধি ও এতিমদের সহ মোট ৩৫০ পরিবারকে প্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী উপহার দিয়েছেন খোঁজ নিয়ে জানা গিয়েছে গত ২০ মার্চ থেকে আজ ০৪ মে পর্যন্ত তিনি প্রায় ৩৪০০ পরিবারের মাঝে উপহার খাদ্য সামগ্রী দিয়েছেন।খাদ্য সমগ্রীতে রয়েছে- চাল ৫ কেজি,ডাল ১ কেজি,তেল ১ লিটার,ছোলা ২ কেজি,চিনি ১ কেজি,খেজুর ১ কেজি লবন ১ কেজি, আলু ৩ কৈজি,পেয়াজ ১ কেজি ,নানা রকম সবজি,সাবান সহ প্রয়োজনীয় সামগ্রী। এছাড়াও বিভিন্ন সময় মাস্ক,হ্যান্ড স্যানিটাইজার, হ্যান্ড গ্লাভস,স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী ও পি,পি,ই বিতরন করেছেন। জানা যায় প্রতি একদিন পরপর ১০০ অসহায় মানুষের কাছে ইফতার সামগ্রী অথবা রান্না খাবার ও ২০০ মানুষের কাছে সেহরির সময় রান্না করা খাবার তুলে দেন। ইফতারির খাদ্য সামগ্রী হিসেবে দিয়েছেন,মুড়ি,চিড়া,গুড় ,ছোলা,চিনি,খেজুর,রুহ আফজা। এর আগে তিনি ডাক্তার, নার্স, আইনজীবী,স্বাস্থ্যকর্মী,কিছু সাংবাদিক,ও আইন শৃঙ্খলায় নিয়োজিতদের পিপিই উপহার দেন। গাজী সারোয়ার হোসেন বাবু জানান করোনা ভাইরাসের চলমান পরিস্থিতিতে খেটে খাওয়া,নিম্ন আয়ের ও মধ্যবিত্ত মানুষ আজ অনেক অসহায় হয়ে পড়েছে।সরকার অসহায়দের জন্য যথাসাধ্য সহযোগীতা করে আসছে তারপরও আমরা যারা রাজনীতি করি আমাদের উচিত নিজ নিজ অবস্থান থেকে এদের পাশে দাঁড়ানো। আর তাই আমি আমার সামর্থ্য অনুযায়ী এদের পাশে দাঁড়িয়েছি এবং অবস্থার পরিবর্তন না হওয়া পর্যন্ত এ মানুষগুলোর পাশে নিজের সামর্থ্য অনুযায়ী থাকবো ইনশাল্লাহ। এছাড়াও রাজধানীর যেকোন প্রান্ত থেকে সহযোগীতা চেয়ে ফোন আসলে তার পরিচয় গোপন রেখে উপহার খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দিচ্ছি এবং এটা চলমান থাকবে। সমাজের বিত্তবানদের প্রতি আমার বিশেষ আহবান থাকবে যার যার নিজ এলাকার নিম্ন আয়ের মানুষদের পাশে থেকে সহযোগীতার হাত বাড়িয়ে দেওয়ার জন্য।

*******************

বৈশ্বিক মহামারি করোনা ভাইরাসে আর্ত মানবতার সেবায় ঢাকা মহানগর দক্ষিন যুবলীগ।

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার নির্দেশে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের চেয়ারম্যন প্রফেসর শেখ ফজলে শামস পরশ ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ মাইনুল হোসেন খাঁন নিখিল এর নেতৃত্বে ঢাকা মহানগর দক্ষিন যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক গাজী সারোয়ার হোসেন বাবু ব্যাক্তিগত উদ্যোগে নিজস্ব অর্থায়নে গতকাল বৃহস্পতিবার রাজধানীর সূত্রাপুর ও যাত্রাবাড়ির বিভিন্ন এলাকায় দলীয় নিম্নবিত্ত ১০০ কর্মীকে প্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী উপহার দেন।এবং ২০০ মধ্যবিত্ত, অসহায় মানুষের মাঝে ও ৫০ জন প্রতিবন্ধি ও এতিমদের সহ মোট ৩৫০ পরিবারকে প্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী উপহার দিয়েছেন খোঁজ নিয়ে জানা গিয়েছে গত ২০ মার্চ থেকে আজ ০৪ মে পর্যন্ত তিনি প্রায় ৩৪০০ পরিবারের মাঝে উপহার খাদ্য সামগ্রী দিয়েছেন।খাদ্য সমগ্রীতে রয়েছে- চাল ৫ কেজি,ডাল ১ কেজি,তেল ১ লিটার,ছোলা ২ কেজি,চিনি ১ কেজি,খেজুর ১ কেজি লবন ১ কেজি, আলু ৩ কৈজি,পেয়াজ ১ কেজি ,নানা রকম সবজি,সাবান সহ প্রয়োজনীয় সামগ্রী। এছাড়াও বিভিন্ন সময় মাস্ক,হ্যান্ড স্যানিটাইজার, হ্যান্ড গ্লাভস,স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী ও পি,পি,ই বিতরন করেছেন। জানা যায় প্রতি একদিন পরপর ১০০ অসহায় মানুষের কাছে ইফতার সামগ্রী অথবা রান্না খাবার ও ২০০ মানুষের কাছে সেহরির সময় রান্না করা খাবার তুলে দেন। ইফতারির খাদ্য সামগ্রী হিসেবে দিয়েছেন,মুড়ি,চিড়া,গুড় ,ছোলা,চিনি,খেজুর,রুহ আফজা। এর আগে তিনি ডাক্তার, নার্স, আইনজীবী,স্বাস্থ্যকর্মী,কিছু সাংবাদিক,ও আইন শৃঙ্খলায় নিয়োজিতদের পিপিই উপহার দেন। গাজী সারোয়ার হোসেন বাবু জানান করোনা ভাইরাসের চলমান পরিস্থিতিতে খেটে খাওয়া,নিম্ন আয়ের ও মধ্যবিত্ত মানুষ আজ অনেক অসহায় হয়ে পড়েছে।সরকার অসহায়দের জন্য যথাসাধ্য সহযোগীতা করে আসছে তারপরও আমরা যারা রাজনীতি করি আমাদের উচিত নিজ নিজ অবস্থান থেকে এদের পাশে দাঁড়ানো। আর তাই আমি আমার সামর্থ্য অনুযায়ী এদের পাশে দাঁড়িয়েছি এবং অবস্থার পরিবর্তন না হওয়া পর্যন্ত এ মানুষগুলোর পাশে নিজের সামর্থ্য অনুযায়ী থাকবো ইনশাল্লাহ। এছাড়াও রাজধানীর যেকোন প্রান্ত থেকে সহযোগীতা চেয়ে ফোন আসলে তার পরিচয় গোপন রেখে উপহার খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দিচ্ছি এবং এটা চলমান থাকবে। সমাজের বিত্তবানদের প্রতি আমার বিশেষ আহবান থাকবে যার যার নিজ এলাকার নিম্ন আয়ের মানুষদের পাশে থেকে সহযোগীতার হাত বাড়িয়ে দেওয়ার জন্য।

**************************

 

বৈশ্বিক মহামারি করোনা ভাইরাসে আর্ত মানবতার সেবায় ঢাকা মহানগর দক্ষিন যুবলীগ।

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার নির্দেশে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের চেয়ারম্যন প্রফেসর শেখ ফজলে শামস পরশ ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ মাইনুল হোসেন খাঁন নিখিল এর নেতৃত্বে ঢাকা মহানগর দক্ষিন যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক গাজী সারোয়ার হোসেন বাবু ব্যাক্তিগত উদ্যোগে নিজস্ব অর্থায়নে গতকাল বৃহস্পতিবার রাজধানীর সূত্রাপুর ও যাত্রাবাড়ির বিভিন্ন এলাকায় দলীয় নিম্নবিত্ত ১০০ কর্মীকে প্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী উপহার দেন।এবং ২০০ মধ্যবিত্ত, অসহায় মানুষের মাঝে ও ৫০ জন প্রতিবন্ধি ও এতিমদের সহ মোট ৩৫০ পরিবারকে প্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী উপহার দিয়েছেন খোঁজ নিয়ে জানা গিয়েছে গত ২০ মার্চ থেকে আজ ০৪ মে পর্যন্ত তিনি প্রায় ৩৪০০ পরিবারের মাঝে উপহার খাদ্য সামগ্রী দিয়েছেন।খাদ্য সমগ্রীতে রয়েছে- চাল ৫ কেজি,ডাল ১ কেজি,তেল ১ লিটার,ছোলা ২ কেজি,চিনি ১ কেজি,খেজুর ১ কেজি লবন ১ কেজি, আলু ৩ কৈজি,পেয়াজ ১ কেজি ,নানা রকম সবজি,সাবান সহ প্রয়োজনীয় সামগ্রী। এছাড়াও বিভিন্ন সময় মাস্ক,হ্যান্ড স্যানিটাইজার, হ্যান্ড গ্লাভস,স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী ও পি,পি,ই বিতরন করেছেন। জানা যায় প্রতি একদিন পরপর ১০০ অসহায় মানুষের কাছে ইফতার সামগ্রী অথবা রান্না খাবার ও ২০০ মানুষের কাছে সেহরির সময় রান্না করা খাবার তুলে দেন। ইফতারির খাদ্য সামগ্রী হিসেবে দিয়েছেন,মুড়ি,চিড়া,গুড় ,ছোলা,চিনি,খেজুর,রুহ আফজা। এর আগে তিনি ডাক্তার, নার্স, আইনজীবী,স্বাস্থ্যকর্মী,কিছু সাংবাদিক,ও আইন শৃঙ্খলায় নিয়োজিতদের পিপিই উপহার দেন। গাজী সারোয়ার হোসেন বাবু জানান করোনা ভাইরাসের চলমান পরিস্থিতিতে খেটে খাওয়া,নিম্ন আয়ের ও মধ্যবিত্ত মানুষ আজ অনেক অসহায় হয়ে পড়েছে।সরকার অসহায়দের জন্য যথাসাধ্য সহযোগীতা করে আসছে তারপরও আমরা যারা রাজনীতি করি আমাদের উচিত নিজ নিজ অবস্থান থেকে এদের পাশে দাঁড়ানো। আর তাই আমি আমার সামর্থ্য অনুযায়ী এদের পাশে দাঁড়িয়েছি এবং অবস্থার পরিবর্তন না হওয়া পর্যন্ত এ মানুষগুলোর পাশে নিজের সামর্থ্য অনুযায়ী থাকবো ইনশাল্লাহ। এছাড়াও রাজধানীর যেকোন প্রান্ত থেকে সহযোগীতা চেয়ে ফোন আসলে তার পরিচয় গোপন রেখে উপহার খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দিচ্ছি এবং এটা চলমান থাকবে। সমাজের বিত্তবানদের প্রতি আমার বিশেষ আহবান থাকবে যার যার নিজ এলাকার নিম্ন আয়ের মানুষদের পাশে থেকে সহযোগীতার হাত বাড়িয়ে দেওয়ার জন্য।

About Saimur Rahman

Leave a Reply