Breaking News
Home / এক্সক্লুসিভ / বৃদ্ধাশ্রম ও অনাত আশ্রম একসাথে হওয়া উচিৎ-মা দিবসে বললেন মডেল প্রিয়াংকা জামান

বৃদ্ধাশ্রম ও অনাত আশ্রম একসাথে হওয়া উচিৎ-মা দিবসে বললেন মডেল প্রিয়াংকা জামান

সম্পাদনায়-আরজে সাইমুর: আজ বিশ্ব মা দিবস। ‘মা’ – ছোট্ট একটা শব্দ, কিন্তু কি বিশাল তার পরিধি! সৃষ্টির সেই আদিলগ্ন থেকে মধুর এই শব্দটা শুধু মমতার নয়, ক্ষমতারও যেন সর্বোচ্চ আধার৷ মার অনুগ্রহ ছাড়া কোনো প্রাণীরই প্রাণ ধারণ করা সম্ভব নয়৷ তিনি আমাদের গর্ভধারিনী, জননী৷ জন্মদাত্রী হিসেবে আমার, আপনার, সকলের জীবনে মায়ের স্থান সবার ওপরে৷ তাই তাঁকে শ্রদ্ধা, ভালোবাসা জানানোর জন্য একটি বিশেষ দিনের হয়ত কোনো প্রয়োজন নেই৷ তারপরও আধুনিক বিশ্বে মে মাসের দ্বিতীয় রবিবারটিকে ‘মা দিবস’ হিসেবে পালন করা হচ্ছে, যার সূত্রপাত ১৯১৪ সালের ৮ই মে থেকে৷ সঙ্গে উপহার হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে সাদা কার্নেশন ফুল৷ সমীক্ষা বলছে, বছরের আর পাঁচটা দিনের তুলনায় এদিন অনেক বেশি মানুষ নিজের মাকে ফোন করেন, তাঁর জন্য ফুল কেনেন, উপহার দেন৷ আচ্ছা সত্যি করে বলুন তো, মায়েদের কি আলাদা করে কোনো উপহারের প্রয়োজন পড়ে? তাঁরা যে সন্তানের মুখে শুধুমাত্র ‘মা’ ডাক শুনতে পেলেই জীবনের পরম উপহারটি পেয়ে যান৷

আজ এই বিশ্ব মা দিবসে মাকে নিয়ে স্মৃতিচারণ করে সময়ের জনপ্রিয় মডেল ও অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা জামান জানান; আমার মায়ের কাছে আমি তার শ্রেষ্ঠ সন্তান। মা দিবসে আমি শুধু আমার মায়ের জন্য না, পৃথিবীর সকল মায়েদের জন্য দোয়া করছি এই রমজানে আমার বিশেষ দোয়া পৃথিবীর সব মাদেরকে আল্লাহ যেন সুস্থ রাখে সহিসালামতে রাখে।পৃথিবীর সকল মা কে শ্রদ্ধা ও ভালবাসা। তিনি আরও জানান;বৃদ্ধাশ্রম ও অনাত আশ্রম একসাথে হওয়া উচিৎ এতে করে বৃদ্ধরা পাবে সন্তান আর অনাত রা পাবে পিতা মাতা ।

 

*********************

আরও পড়ুন

*******************
মা দিবসে মাকে কী উপহার দেবেন?
 
বছর ঘুরে আবার এলো মা দিবস। মায়েদের জন্য এই দিনটি অবশ্যই বিশেষত্ব বহন করে। কিন্তু এ বছর উদযাপনের সুযোগ একপ্রকার নেই বললেই চলে। তাই বলে কি এমন বিশেষ দিনে মাকে কোনো উপহার দেবেন না?

এই অবস্থায় মাকে কী উপহার দেয়া যায়, তা নিয়ে অনেকেই চিন্তা করছেন। আপনি ঘরে বসেই মাকে চমকে দিতে পারেন। তৈরি করতে পারেন বিশেষ কোনো উপহার। এমনকি মায়ের থেকে দূরে অবস্থান করলেও তা সম্ভব। চলুন জেনে নেয়া যাক-

ma

কেক: কেক যেকোনো উদযাপনেই আলাদা সৌন্দর্য নিয়ে আসে। এই মা দিবসে নিজ হাতে মায়ের জন্য কেক বেক করুন। সামান্য যে ২-৩টি উপকরণ কেক বানাতে লাগে, তা লকডাউনের বাজারে পেতে আপনাকে খুব একটা সমস্যায় পড়তে হবে না। ছোট কাপ বা কফি মাগে বানাতে পারেন বিভিন্ন স্বাদের রকমারি কেকও।

মায়ের পছন্দের খাবার: লকডাউনে বাড়ির গৃহিণীদের কাজের চাপ অনেকটাই বেড়ে গিয়েছে। রোজ নিশ্চয়ই লক্ষ করেছেন যে, পরিচারকের অনুপস্থিতিতে কঠোর পরিশ্রম করে রোজ আপনার সব চাহিদা মিটিয়ে যাচ্ছেন আপনার মা। তাই মা দিবসের বিশেষ দিনটিতে তাকে সম্পূর্ণ ছুটি দিন। আর নিজে রাঁধুন তার পছন্দের খাবারগুলো।

ma

চকোলেট ও বিশেষ বার্তা: খুব ভালো উপহার হয়ে উঠতে পারে আপনার নিজের হাতে তৈরি করা মায়ের জন্য কোনো গ্রিটিংস কার্ড বা বিশেষ বার্তা। সেই কার্ডে মায়ের জন্য বিশেষ কোনো কবিতা বা লাইন লিখতে পারেন, যা আপনার মায়ের মনকে আনন্দে ভরিয়ে দেবে। মায়ের শোয়ার টেবিলের কাছে সেই কার্ড আর পাশে চকোলেট রেখে দিতে পারেন। যাতে ঘুম থেকে উঠেই সন্তানের ভালোবাসায় তার খুব সুন্দরভাবে দিনটি শুরু হয়।

ডিজিটাল উপহার: মাকে নিয়ে সিনেমা দেখতে যাওয়ার উপায় এখন নেই। কাজেই ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মই এখন অসয়মের সাথী। কোনো বিশেষ সাইট সাবস্ক্রাইব করে মাকে উপহার দিতে পারেন এই বিশেষ দিনে। অথবা কোনো ই-বুক বা অডিও বুক সাবস্ক্রাইব করেও উপহার দিতে পারেন।

ma

বিশেষ ভিডিও: মায়ের আর আপনার বিভিন্ন মুহূর্তের ছবি নিয়ে মোবাইলে একটি ভিডিও তৈরি করে মাকে উপহার দিতে পারেন। সেই ভিডিওতে লিখে দিন মায়ের মন আনন্দে ভরিয়ে দেয়ার মতো কয়েকটা লাইন।

About Saimur Rahman

Leave a Reply