Breaking News
Home / বাংলাদেশ / হেলোর উদ্যোগে পোশাক শ্রমিকদের বিনামূল্যে ‘জরায়ু ক্যান্সার পরীক্ষা’

হেলোর উদ্যোগে পোশাক শ্রমিকদের বিনামূল্যে ‘জরায়ু ক্যান্সার পরীক্ষা’

চট্টগ্রাম: বিশ্ব ক্যান্সার দিবস ২০২১ উপলক্ষে দেশর বাণিজ্যিক রাজধানী চট্টগ্রামের তৈরি পোশাক শ্রমিকদের (নারী) বিনামূল্যে ‘জরায়ু ক্যান্সার’ পরীক্ষা করেছে বেসরকারী পেশাজীবী ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান হেলদি হার্ট হ্যাপী লাইফ অরগাইনেজশন (হেলো)। বৃহস্পতিবার (৪ ফেব্রুয়ারি) নগরির রপ্তানি প্রক্রিয়াকরণ অঞ্চলের (ইপিজেড) র্গামেন্টস সেভেন সেকশন লিমিটেড এ কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হয়।

হেলোর প্রধান পৃষ্ঠপোষক ও প্রতিষ্ঠাতা বিশিষ্ট হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক ডা. মহসীন আহমদের সভাপত্বিতে বেলা ১১ টায় প্রধান অতিথি অধ্যাপক ডা. সাহেনা আক্তার, অধ্যক্ষ, চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ আনুষ্ঠানিকভাবে কর্মসূচির উদ্বোধন করেন। বিশেষ অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম জেলার সিভিল সার্জন ডা: শেখ ফজলে রাব্বী এবং চট্টগ্রাম বিএমএ সাধারণ সম্পাদক ডা: মো: ফয়সাল ইকবাল চৌধুরী।

‘জরায়ুর মুখে ক্যান্সার’ প্রতিরোধে সচেতনতা বিষয়ে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন, চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের সহকারী অধ্যাপক ডা. ফাহমিদা শিরিন। বক্তব্য রাখেন, সেকশন সেভেন লিমিটেডের পরিচালক বিল্পব বড়ুয়া, অধ্যাপক ডা. এরশাদ উদ্দিন প্রমূখ।

অনুষ্ঠানের সভাপতি ডা: মহসীন আহমদ শুভেচ্ছা বক্তব্যে বলেন হেলো এতদিন দেশের সুবিধাবঞ্চিত দের মাঝে হৃদরোগ বিষয়ে সচেতনতা ও চিকিত্সাসেবা দিয়ে আসছে। আজকের অনুষ্ঠানের মাধ্যমে হেলো ক্যান্সার রোগে সচেতনতা ও চিকিত্সাসেবা কার্যক্রম শুরু করল এবং ভবিষ্যতে অন্যান্য বিষয়েও কার্যক্রম অব্যহত থাকবে। এ ব্যাপারে উপস্থিত সকলকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ডা: সাহেনা আক্তার বলেন, “আন্তর্জাতিক ক্যান্সার গবেষণা এজেন্সি তথ্য মতে, বাংলাদেশে বছরে সাড়ে ছয় হাজারের বেশি নারী জরায়ু মুখের ক্যান্সারে মারা যাচ্ছে। প্রতি বছর নতুন করে ১২ হাজারের বেশি নারীর শরীরে এই ক্যান্সার সনাক্ত হচ্ছে। অথচ এ ধরনের ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার পূর্বেই খুব সহজে সনাক্ত করা যায়। ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার আগ্রেই প্রতিকার করা যায়। তাছাড়া দেশের সব উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও জেলা সদর হাসপাতালে বিনামূল্যে এটি নির্ণয়ের প্রাথমিক পরীক্ষা করা যায়। শুধুমাত্র সচেতনা ও প্রচার-প্রচারণার অভাবে এটি হয়ে উঠেনা। হেলো যে উদ্যোগ গ্রহণ করেছে এমন কর্মসূচি সমাজের অন্যান্য সেবাদানকারী ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান গ্রহণ করলে জরায়ু ক্যান্সার প্রতিরোধে বিশেষ ভূমিকা রাখবে বলে আমার দৃঢ় বিশ্বাস।”

About Saimur Rahman

Leave a Reply