Breaking News
Home / আন্তর্জাতিক / চেয়ার, টেবিল, মাইক ভাঙচুর, তামিলনাড়ু বিধানসভায় তুলকালাম

চেয়ার, টেবিল, মাইক ভাঙচুর, তামিলনাড়ু বিধানসভায় তুলকালাম

54063_C47rinTWcAE_JLHআস্থা ভোটকে কেন্দ্র করে তামিলনাড়ু বিধানসভায় তুলকালাম কান্ড ঘটে গেছে। মুখ্যমন্ত্রী ই. পালানিস্বামীর ওপর আস্থা ভোট আয়োজন করা হয় শনিবার। এতে গোপন ব্যালটে ভোট নেয়ার দাবি তোলা হয়। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে বিধানসভার ভিতরে ক্ষিপ্ত এমএলএ’রা চেয়ার, টেবিল ভেঙেছেন। ভেঙেছেন মাইক। তাদের হাতে অপদস্ত হয়েছেন স্পিকার। বিরোধী দল ডিএমকে’র এমএলএ’রা স্পিকার পি. ধনপালের চেয়ার ঘিরে রাখেন। তার টেবিল উল্টে দেন। কাগজপত্র ছিড়ে টুকরো টুকরো করে ফেলেন। স্পিকারকে নিরাপত্তা রক্ষাকারীরা নিরাপদে সরিয়ে নেন। এ সময় একজন এমএলএ’কে স্পিকারের চেয়ারে বসা অবস্থায় দেখা যায়। তিনি স্পিকারের চেয়ারে বসে বসে হাসছিলেন। এ খবর দিয়েছে এতে বলা হয়, পরে স্পিকার ধনপাল বলেছেন, তার শার্ট ছিড়ে ফেলা হয়েছে। তিনি বলেন, আমি কার কাছে বিচার চাইবো। আমি জনগণের কাছে বলবো আমার ওপর কি নির্যাতন হয়েছে। তিনি বিধানসভা থেকে ডিএমকে দলের এমএলএ’দের বের করে দেয়ার ঘোষণা দেন।  বিধানসভায় যখন এমন বিশৃংখলা তখন সব টেলিভিশনে সরাসরি সম্প্রচার বন্ধ করে দেয়া হয়। মিডিয়া রুমের অডিও বিচ্ছিন্ন করে দেয়া হয়। বিপুল সংখ্যক পুলিশ প্রবেশ করে পার্লামেন্টের ভিতরে। উল্লেখ্য, ও. পানিরসেলভাম নেতৃত্বাধীন এআইএডিএমকে’র একাংশ ও বিরোধী দল ডিএমকে মুখ্যমন্ত্রীর ওপর আস্থা ভোট গোপন ব্যালটে নেয়ার দাবি জানায়। কিন্তু সে দাবি প্রত্যাখ্যান করেন স্পিকার। এরপরই সেখানে সৃষ্টি হয় বিশৃংখল অবস্থা। এ সময় বিরোধী  দলীয় এমএলএ’রা ওই আস্থাভোটের বিরোধিতা করেন। তারা দাবি তোলেন স্পিকার ধনপাল মুখ্যমন্ত্রীর পক্ষ নিচ্ছেন। এ অবস্থায় স্থানীয় সময় দুপুর একটা পর্যন্ত অধিবেশন মুলতবি করা হয়। পরে আবারও বিকাল তিনটা পর্যন্ত তা মুলতবি করা হয়েছে।

About Saimur Rahman

Leave a Reply