Breaking News
Home / এক্সক্লুসিভ / ‘সাকিব দলে থাকলে কাজ করা সহজ’

‘সাকিব দলে থাকলে কাজ করা সহজ’

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগের (বিপিএল) ৮ম আসর মাঠে গড়াতে ৪ দিন বাকি। তবে প্রতিবারের মতো এবার শুরুর আগের উত্তেজনা নেই খুব একটা। তবে গতকাল ফরচুন বরিশালের অনানুষ্ঠানিক অনুশীলন কিছুটা হলেও উত্তাপ ছড়িয়েছে। তবে এদিন দলটি অনুশীলন করে তাদের অধিনায়ক ও তারকা ক্রিকেটার সাকিব আল হাসানকে ছাড়া। তবে আলোচনায় ছিলেন দলের দেশীয় তারকা কোচ খালেদ মাহমুদ সুজন জানালেন যে, দলে সাকিব আছেন সেখানে কাজ করা সহজ। তরুণ ক্রিকেটার নাঈম হাসানের কণ্ঠেও ঝরলো সাকিব বন্দনা। অন্যদিকে ঢাকার তিন তারকা তামিম ইকবালের সঙ্গে গতকাল যোগ দিয়েছিলেন মাশরাফি বিন মুর্তজা। নিউজিল্যান্ড থেকে ফিরে হাজির হয়েছিলেন খুলনার অধিনায়ক মুশফিকুর রহীম।

একে অপরকে জড়িয়ে ধরে মাঠে আড্ডায় জমিয়ে তোলেন সিনিয়ররা। সেখানে যোগ দেন নুরুল হাসান সোহান, কোচ মোহাম্মদ সালাউদ্দিন। এক কথায় বিপিএলের যে আর খুব বেশি সময় বাকি নেই সেই উত্তেজনাই ছড়িয়েছে গতকাল মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামের একাডেমির মাঠে। বরিশালের প্রধান কোচ অনুশীলনের আগে এক ভিডিও বার্তায় দলে সাকিব প্রসঙ্গে বলেন, ‘ফরচুন বরিশালের হয়ে কাজ করার জন্য আমি খুবই রোমাঞ্চিত। যে দলে সাকিব আল হাসান আছে, সে দলে কাজ করা তো সবসময়ই সহজ হয়। আমি আর সাকিব ঢাকার হয়ে চার বছর কাজ করেছি। এ ছাড়াও আমার আর সাকিবের রসায়ন সবসময়ই ভালো।’
অভিজ্ঞতা আর তারুণ্যকে প্রাধান্য দিয়ে বেশ শক্তিশালী দল গড়েছে ফরচুন বরিশাল। তবে খালেদ মাহমুদ সুজন অবশ্য বিপিএলের এবারের আসরে অংশগ্রহণকারী ৬টি দলকেই শক্তিশালী হিসেবে দেখছেন। তবে সবাইকে ছাড়িয়ে মাঠের পারফরম্যান্সে বরিশালকে শিরোপা পাইয়ে দেয়াই দলের প্রধান কোচের লক্ষ্য। তিনি বলেন, ‘অনেক চিন্তা-ভাবনা করেই দল করেছি। তারপরও বলবো, প্রত্যেকটা দলই শক্তিশালী, আমরাও যথেষ্ট শক্তিশালী দল। মাঠের পারফরম্যান্সটাই গুরুত্বপূর্ণ। প্রথমবার (বরিশাল) চ্যাম্পিয়ন হওয়ার মতো যথেষ্ট ভালো দল আমরা।’ নিজের দলের সামর্থ্যের ওপর দারুণ আস্থা কোচ সুজনের। তিনি বলেন, ‘আমাদের সামর্থ্য আছে খুবই ভারসাম্যপূর্ণ একটি দল, টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটের জন্য ঠিক যেমন হওয়া উচিত। টি-টোয়েন্টি ফরম্যাট এমন একটা খেলা, আপনি বলতে পারবেন না কোনটা ভালো দল কোনটা খারাপ দল। নির্দিষ্ট দিনে যারা ভালো খেলতে পারবে তারাই জিতবে। তবে আমি আশাবাদী।’
যেকোনো দলের শক্তিমত্তা বাড়াতে সাকিব আল হাসানের মতো একজন অলরাউন্ডার যথেষ্ট। কোচের পর বিশ্বসেরা আলরাউন্ডারকে দলে পেয়ে তরুণ ক্রিকেটার নাঈম হাসানও বেশ আপ্লুত। বলছেন সাকিবের সঙ্গে খেলা সহজ। কারণ পরিস্থিতির দাবি আগেই বুঝতে পারেন টাইগার ক্রিকেটের পোস্টার বয়। নাঈম বলেন, ‘সাকিব ভাইয়ের সঙ্গে অনেকটাই ইজি কারণ ভাইয়া আগেই বলে দিতে পারে কি করতে হবে, কি সিচুয়েশন ডিমান্ড করে, এখন কি হবে সব আগে থেকে বলে দেয় যেটা বোলিং করার সময় সহজ হয়। যখন ওনি অধিনায়ক ছিলেন তখনও আগে থেকে বলে দিতেন সিচুয়েশন কি ডিমান্ড করতেছে। আসলে যখনই ক্রিকেট খেলতে আসি, যে টিমেই খেলতে আসি জেতার জন্যই নামি মাঠে। ইনশাআল্লাহ চেষ্টা থাকবে টিমকে জেতানো, বাকিটা আল্লাহর ইচ্ছা। ইনশাআল্লাহ আল্লাহ যদি চায় ইনশাআল্লাহ আমরা ট্রফি জিতবো।’ বলার অপেক্ষা রাখে না বরিশালের প্রথম দিনের অনুশীলনে সাকিব না থাকলেও তাকে সামনে রেখেই দলের সব চিন্তা শিরোপা জয়ের!
অন্যদিকে মাঠে সাকিব ও মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ থাকলে হয়তো ষোলকলাই পূর্ণ হতো। কারণ ঢাকার দুই তারকা মাশরাফি ও তামিম মাঠ মাতিয়ে রেখেছিলেন। তাদের সঙ্গে ক্রিকেট নিয়ে প্রাণবন্ত আলোচনায় মেতেছিলেন মুশফিকও। ঠিক সেই সময় সেখানে প্রবেশ করেন দেশের প্রধান কিউরেটর গামিনি ডিসিলভা। আর তাকে দেখেই কাছে ডেকে নেন তামিম। মূলত বিপিএলের আগে মিরপুর শেরেবাংলার উইকেটে রান পাওয়া নিয়ে থাকে বড় চিন্তা এবার সেখানে যোগ হয়েছে আরেক ভেন্যু সিলেটও। কারণ সবশেষ ইন্ডিপেন্ডেন্স কাপে সেখানে রান না হওয়াও দেশের ক্রিকেটারদের জন্য চিন্তার কারণ হয়েছে। তাই গামিনিকে পেয়ে তামিম সিলেটের উইকেট নিয়ে চিন্তার কথাও জানান। গামিনিকেও দেখা যায় দেশের এই সেরা ব্যাটসম্যানকে আশ্বস্ত করতে! তবে কতটা হয়েছেন তা দূর থেকে অনুমান করা কঠিন ছিল!

About Saimur Rahman

Leave a Reply