Breaking News
Home / খেলা / ঢাকার বিপক্ষে রাজশাহীর জয়

ঢাকার বিপক্ষে রাজশাহীর জয়

Rajshahi-Kingsইংলিশ অলরাউন্ডার সামিত প্যাটেল ও মোমিনুল হকের জোড়া হাফ-সেঞ্চুরিতে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগ (বিপিএল) টুয়েন্টি টুয়েন্টি ক্রিকেটের চতুর্থ আসরে টানা তিন ম্যাচ হারের পর জয়ের মুখ দেখলো রাজশাহীর কিংস। আজ টুর্নামেন্টের ২১তম ম্যাচে ঢাকা ডায়নামাইটসকে ৩ উইকেটে হারিয়েছে রাজশাহী কিংস। প্যাটেল ৩৯ বলে ৭৫ ও মোমিনুল ৪২ বলে ৫৬ রানের নান্দনিক ইনিংস খেলেন। এই জয়ে ৬ ম্যাচে ২ জয়ে ৪ পয়েন্ট সংগ্রহে থাকলো রাজশাহীর। আর ৭ ম্যাচে ৪ জয় ও ৩ হারে ৮ পয়েন্ট সংগ্রহে থাকলো ঢাকার।
১৮৩ রানের বড় লক্ষ্যে শুরুটা ভালো করতে পারেনি রাজশাহী। ৩১ রানের মধ্যে ২ উইকেট হারিয়ে বসে তারা। জুনায়েদ সিদ্দিকী ৪ ও চলমান বিপিএলের একমাত্র সেঞ্চুরিয়ান সাব্বির রহমান ৭ রান করে ফিরেন।এরপর আরেক ওপেনার মোমিনুল হক ও প্যাটেল ইনিংসের চতুর্থ ওভার শেষে দলের হাল ধরেন। তাদের সেই জুটি ১৪ ওভার পর্যন্ত অবিচ্ছিন্ন ছিলো। তখন রাজশাহীর স্কোর ছিলো ২ উইকেটে ১৩০ রান। এসময় রাজশাহীর প্রয়োজন ছিলো ৬ ওভারে ৫৩ রান।তবে ১৫তম ওভারের তৃতীয় বলে এই জুটি ভাঙ্গেন ঢাকার পেসার মোহাম্মদ শহীদ। এবারের আসরের তৃতীয় হাফ-সেঞ্চুরি তুলে ৫৬ রানে থামেন মোমিনুল। তার ৪২ বলের ইনিংসে ৮টি চার ও ১টি ছক্কার মার ছিলো।মোমিনুলের বিদায়ের পরের ওভারেই বিধ্বংসী প্যাটেলকে বিদায় দেন ঢাকার দলপতি সাকিব। ৫টি চার ও ৬টি ছক্কায় নিজের বিধ্বংসী রূপ দেখিয়েছেন প্যাটেল। ৩৯ বলে ৭৫ রানের দানবীয় ইনিংস খেলে থামেন তিনি।
মোমিনুল ও প্যাটেলের দুর্দান্ত ব্যাটিং-এ জয়ের পথে চলে আসা রাজশাহী, এই দু’জনের বিদায়েই আবারো চাপে পড়ে যায়। কারন এসয় রাজশাহীর দরকার ছিলো ২৫ বলে ২৯ রান। এরপর পাকিস্তানের উমর আকমল ৬ বলে ১২ রান করে ফিরলে, দলের জয় নিশ্চিত করার দায়িত্ব গিয়ে বর্তায় অধিনায়ক ওয়েস্ট ইন্ডিয়ান ড্যারেন স্যামির উপর। কিন্তু নিজের দায়িত্বটি ভালোভাবে পালন করতে পারেননি তিনি। নামের পাশে ৯ রান রেখে স্বদেশী ডোয়াইন ব্রাভোর শিকার হন স্যামি।কিন্তু ইনিংসের শেষ ওভারে তৃতীয় ও পঞ্চম বলে দু’টি বাউন্ডারি মেরে রাজশাহীকে দুর্দান্ত এক জয় এনে দেন ফরহাদ রেজা ও মেহেদি হাসান মিরাজ। শেষ ওভারে রাজশাহীর প্রয়োজন ছিলো ৯ রান। আর ঐ কাজটি সম্পন্ন করেন ফরহাদ ও মিরাজ। ফরহাদ ৫ ও মিরাজ ৬ রানে অপরাজিত থাকেন। ঢাকার পক্ষে ব্রাভো ৩ উইকেট নেন।
এর আগে, চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরি স্টেডিয়ামে আজ দিনের প্রথম টস ভাগ্যে জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্বান্ত নেন ঢাকার অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। দুই ওপেনার মেহেদি মারুফ ও সাঙ্গাকারার কল্যাণে এ ম্যাচে শুরুটা দুর্দান্ত করে ঢাকা। ৫২ বলে ৭১ রানের সূচনা এনে দেন ঢাকার দুই ওপেনার। এরমধ্যে ৩৫ রান অবদান রেখে ফিরেন মারুফ। তার ২৫ বলের ইনিংসে ৩টি চার ও ২টি ছক্কা ছিলো।এরপর দলের ইনিংসটা সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে গেছেন সাঙ্গা। তাকে সহায়তা দিয়েছেন শ্রীলংকার সেক্কুজে প্রসন্ন। হাফ-সেঞ্চুরি তুলে ৬৬ রানে থামেন সাঙ্গা। তার ৪৬ বলের ইনিংসে ৫টি চার ও ৩টি ছক্কার মার ছিলো। সাঙ্গাকারার দেখানে পথে হেটে দলকে বড় সংগ্রহই এনে দিয়েছেন আগের ম্যাচে নয় নম্বরে নেমে ১৮ বলে হাফ-সেঞ্চুরি করা প্রসন্ন। এবার নামেন চার নম্বরে। এবারও ব্যাট হাতে ঝড়ো ইনিংস খেলেন তিনি। ২টি চার ও ৩টি ছক্কায় ১৬ বলে ৩৪ রান করে অপরাজিত থাকেন প্রসন্ন। ঝড়ো ইনিংস খেলেছেন অধিনায়ক সাকিবও। ৩টি চারে ১২ বলে ১৮ রানে অপরাজিত থাকেন সাকিব। রাজশাহীর পক্ষে ফরহাদ রেজা ২ উইকেট শিকার করেন।

About Admin Rafi

Leave a Reply