Breaking News
Home / ভিডিও / দেখুন সার্কাসের নামে এগুলো কি হচ্ছে!! – ভিডিওতে দেখুন

দেখুন সার্কাসের নামে এগুলো কি হচ্ছে!! – ভিডিওতে দেখুন

সার্কাস একটি ঐতিহ্যবাহী খেলা। অনেক আগে থেকেই আমাদের দেশের শহরে গ্রামে সার্কাস প্রদর্শন হয়ে আসছে। এক সময় বিনোদনের একমাত্র মাধ্যম ছিল সার্কাস আর যাত্রাপালা।

তখনকার সময়ে সার্কাস ও যাত্রাপালা সবাই মিলেই দেখতে যেত। কিন্তু এখন যাত্রার নামে বেহায়াপনা আর সার্কাসের নামে মেয়েদের দিয়ে শরীর প্রদর্শন হচ্ছে। তাই অনেক দিনের পুরনো এই ঐতিহ্যকে আর বাঁচিয়ে রাখা যাচ্ছে না।

ভিডিওটি দেখতে নিচে ক্লিক করুন।

ভিডিওটি পোষ্টের নিচে দেয়া আছে। ভিডিওটি দেখতে স্ক্রল করে পোষ্টের নিচে চলে যান।

আরো পড়ুনঃ

‘সামনে তোর অনেক বিপদ, পীরবাবা তোকে রক্ষা করবে’

‘আসসালামু আলাইকুম, কেমন আছিস বাবা? তুই আমাকে চিনবি না। তোর নসিব প্রসন্ন। পীর বাবার মাজার থেকে আমি তোর ভালোর জন্য ফোন করেছি। সামনে তোর অনেক বিপদ। আমি তোকে রক্ষা করবো। পীরবাবা তোকে রক্ষা করবে। বাবার খেদমতে তোকে নিয়োজিত হতে হবে। তাহলে অল্প দিনেই অনেক ধন সম্পদের মালিক হবি।’

ফোন করে এভাবেই কথা বলে মানুষকে প্রভাবিত করার চেষ্টা করতেন জ্বিনের বাদশা পরিচয় দেওয়া প্রতারক চক্রের দলনেতা রাহেনুর রহমান। এভাবে ভয় ও লোভ দেখিয়ে প্রতারণার ফাঁদে ফেলে সাধারণ মানুষের লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে প্রতারক চক্রটি।

টার্গেট অনুযায়ী মোবাইল ফোন নম্বর নিয়ে গভীর রাতে কল করে মোবাইল, কুরিয়ারসহ বিভিন্ন পন্থায় টাকা হাতিয়ে নেয় চক্রটি। গোবিন্দগঞ্জে এমনি একাধিক চক্র থাকলেও বুধবার গোপন খবরের ভিত্তিতে একটি চক্রের ৬ সদস্যকে আটক করেছে পুলিশ।

গোবিন্দগঞ্জ থানার ওসি মো. মজিবুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, এসময় তাদের কাছ থেকে কথিত স্বর্ণের পুতুল, সিসা, গ্রান্ডিং মেশিন, কেমিকেল, রং-তুলি, বিভিন্ন ধরণের ছাঁচ উদ্ধার করা হয়েছে।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন জ্বিনের বাদশা চক্রের দলনেতা ও ওই গ্রামের জয়নাল আবেদীনের ছেলে রাহেনুর রহমান (২১), জয়েন উদ্দিনের ছেলে আমিনুল ইসলাম (২০), বুদু মিয়ার ছেলে সিরাজুল ইসলাম (১৯), ময়জাল হোসেনের ছেলে রবিউল ইসলাম (১৭), শহিদুল ইসলামের ছেলে সাগর মন্ডল (১৭) ও নবির হোসেনের ছেলে মো. লাভিস (১৫)।

বৃহস্পতিবার বিকেলে গাইবান্ধা জেলা পুলিশ কার্যালয়ে পুলিশ সুপার আব্দুল মান্নান মিয়া গ্রেফতারকৃত জ্বিনের বাদশা প্রতারণা চক্রের সদস্যদের তাদের ব্যবহৃত উপকরণসহ সাংবাদিকদের সামনে হাজির করেন এবং তাদের সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরেন।

পুলিশ সুপার আরও বলেন, মোবাইলে তাদের সাথে যারাই কথা বলবে তারাই হেপনোটাইজ হয়ে ধরা দেবে। তাই তিনি অপরিচিত মোবাইল থেকে এজাতীয় কল এলে সেই নম্বরটি ব্লাক লিস্ট করার আহ্বান জানান।

About Admin Rafi

Leave a Reply