Breaking News
Home / ভিডিও / যে কারণে সৌদি আরবে,সবার সামনে ৪ জনের শিরচ্ছেদ করা হলো!!বিস্তারিত পড়লে আপনিও অবাক হবেন।

যে কারণে সৌদি আরবে,সবার সামনে ৪ জনের শিরচ্ছেদ করা হলো!!বিস্তারিত পড়লে আপনিও অবাক হবেন।

যে কারণে সৌদি আরবে,সবার সামনে ৪ জনের শিরচ্ছেদ করা হলো!!বিস্তারিত পড়লে আপনিও অবাক হবেন।

নিউজটি ভিডিওসহ দেখতে নিচে যান…

হেরোইন পাচারে অভিযুক্ত তিন পাকিস্তানি নাগরিকের শিরশ্ছেদ করেছে সৌদি আরব। রোববার দেশটির সরকারি সংবাদসংস্থা এসপিএ’র এক প্রতিবেদনে ওই তিন পাকিস্তানির শিরশ্ছেদের তথ্য জানানো হয়েছে। এ নিয়ে চলতে বছরে ২৬ জনের শিরশ্ছেদ করা হলো মধ্যপ্রাচ্যের অত্যন্ত রক্ষণশীল এই দেশটিতে। এসপিএ বলছে, পেটের ভেতরে হেরোইন ঢুকিয়ে পাচারের দায়ে অভিযুক্ত হয়েছিলেন তিন পাকিস্তানি।

ওই তিন ব্যক্তি হলেন, মো. আশরাফ শফি মোহাম্মদ, মো. আরেফ মোহাম্মদ এনায়েত ও মো. আফদাল আসগর আলি। যুক্তরাজ্যভিত্তিক মানবাধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের বরাত দিয়ে রাষ্ট্রীয় এই সংবাদমাধ্যম বলছে, গত বছর অতি রক্ষণশীল এই দেশটিতে ১৫৩ জনের শিরশ্ছেদ করা হয়।

এদের মধ্যে ২০১১ সালে সুন্নি শাসিত সৌদি রাজতন্ত্রের সংস্কারের দাবি জানানো শিয়া নেতা নিমর আল নিমরও ছিলেন। সৌদি আরবে গত দুই দশকের মধ্যে সবচেয়ে বেশি শিরশ্ছেদ করা হয় ২০১৫ সালে। ওই বছর বিভিন্ন অপরাধে অভিযুক্ত অন্তত ১৫৮ জনের শিরশ্ছেদ করে সৌদি সরকার। কট্টরপন্থী এই দেশটিতে ধর্ষণ, সশস্ত্র ডাকাতি, খুন ও মাদ চোরাচালানে অভিযুক্তদের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়।

ভিডিওসহ দেখতে নিচে নামুন

ধর্ষণ ও হত্যার অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় সৌদি আরবে চার পাকিস্তানিকে শিরশ্ছেদ করা হয়েছে। স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার এই দণ্ড কার্যকর করা হয় বলে জানিয়েছে সৌদি আরবের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- লিয়াকত হোসেন, সাজেদ আলী, মো. তাকিব ও ফয়সল মুনির।

সৌদি আরবের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা এসপিএ বরাদ দিয়ে সৌদি গেজেট জানায়,

চার পাকিস্তানির বিরুদ্ধে সৌদি আরবের রাজধানী রিয়াদে নারীকে ধর্ষণ ও হত্যা এবং তার কিশোর ছেলেকে বলাতকারের অভিযোগ ছিল। এছাড়া চার ব্যক্তির বিরুদ্ধে ওই নারীর বাসা থেকে স্বর্ণালংকার ও নগদ অর্থ চুরির অভিযোগও প্রমাণিত হয়েছে।

২০১৮ সালে এ পর্যন্ত সৌদি আরবে ২০জনকে বিভিন্ন অপরাধে শিরশ্ছেদ করা হয়েছে। ২০১৭ সালে সৌদি আরবে ১৪১জনকে শিরশ্ছেদ করা হয়েছিল।

অন্যরা পরছে…

ব্রেকিং নিউজঃ ফের বিমান বিধ্বস্ত; এবার মৃত্যুর সংখ্যা ২০০ ছাড়িয়ে যেতে পারে…!

আলজেরিয়ায় একটি সামরিক বিমান বিধ্বস্ত হয়ে দুই শতাধিক আরোহীর নিহত হয়েছে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। বুধবার স্থানীয় সময় সকালে রাজধানী আলজিয়ার্সের কাছাকাছি বাউফারিক সামরিক বিমানবন্দরে এই দুর্ঘটনার ঘটনা ঘটে। স্থানীয় মিডিয়ার বরাতে বিবিসি অনলাইন জানাচ্ছে, বিধ্বস্তের ঘটনায় মৃত্যুর সংখ্যা ২০০ ছাড়িয়ে যেতে পারে।

তবে আলজেরিয়ার সরকারি রেডিওর খবরে বলা হয়েছে, বিমান বিধ্বস্তের ঘটনায় এখন পর্যন্ত ১০০ জনের মৃত্যু হয়েছে। এতে আরো বলা হয়, বিধ্বস্ত ইলিয়েসন আইএল-৭৬ বিমানটি কয়েকশ সৈন্য বহন করছিল।

আলজেরিয়ার একটি টেলিভিশন চ্যানেলের জানায়, ঘটনাস্থলে ১৪টি অ্যাম্বুলেন্স পৌঁছেছে। আহতদের দ্রুত হাসাপাতালের নেয়া হচ্ছে।

টেলিভিশন ফুটেজে ধ্বংসাবশেষ থেকে ধোঁয়া বের হতে দেখা যাচ্ছে।
স্থানীয় নিউজ ওয়েবসাইট আলজেরি২৪ জানায়, বিমানটি পশ্চিম আলজেরীয় শহর বেসারের দিকে যাচ্ছিল।
চার বছর আগেও সামরিক সদস্য ও তাদের পরিবার নিয়ে আলজেরিয়ায় একটি বিমান বিধ্বস্ত হয়। সেই ঘটনায় ৭৭ জন মানুষ নিহত হয়েছিল।

গত ১২ মার্চ কাঠমান্ডুর ত্রিভুবন বিমানবন্দরে ইউএস-বাংলার একটি উড়োজাহাজ বিধ্বস্ত হয়ে ৭১ আরোহীর মধ্যে ৫০ জনের মৃত্যু হয়। নিহতদের মধ্যে চার ক্রুসহ ২৭ জন ছিলেন বাংলাদেশি।

About Admin Rafi

Leave a Reply