Breaking News
Home / লাইফস্টাইল / মেয়েদের যৌনতার কিছু তথ্য পুরুষের জেনে রাখা দরকার!

মেয়েদের যৌনতার কিছু তথ্য পুরুষের জেনে রাখা দরকার!

অনেক পুরুষেরই মেয়েদের যৌনতা নিয়ে তেমন কোনো ধারণা থাকে না ফলে বৈবাহিক জীবনে অনেক ভুল করে বসেন। তাছাড়াও অন্যান্য কিছুৃ ব্যাপারেও পুরুষের এসব জেনে রাখা দরকার। কারণ পুরুষ ও নারী অনেক কিছুর পার্থক্য রয়েছে। তাহলে দিখে নিন এমনই কিছু তথ্য।

১. মেয়েদের যৌন চাহিদা ছেলেদের ৪ ভাগের এক ভাগ। কিশোরী এবং টিনেজার মেয়েদের যৌন ইচ্ছা সবচেয়ে বেশী। ১৮ বছরের পর থেকে মেয়েদের যৌন চাহিদা কমতে থাকে, ৩০ এর পরে ভালই কমে যায়।

২. ২৫ এর উর্দ্ধ মেয়েরা স্বামীর প্রয়োজনে যৌনকর্ম করে ঠিকই কিন্তু একজন মেয়ে মাসের পর মাস যৌনকর্ম না করে থাকতে পারে কোন সমস্যা ছাড়া।

৩. মেয়েরা রোমান্টিক কাজকর্ম যৌনকর্ম চেয়ে অনেক বেশী পছন্দ করে। বেশীরভাগ মেয়ে গল্পগুজব হৈ হুল্লোর করে যৌনকর্মর চেয়ে বেশী মজা পায়।

৪. মেয়েরা অর্গ্যাজম করে ভগাংকুরের মাধ্যমে, মেয়েদের অর্গ্যাজমে কোন বীর্যপাত হয় না। তবে পেটে প্রস্রাব থাকলে উত্তেজনায় বের হয়ে যেতে পারে।

৫. ভগাংকুরের মাধ্যমে অর্গ্যাজমের জন্য যৌনকর্মের কোন দরকার নেই।

৬. যৌনি পথে পুরুষ লিঙ্গ প্রবশে করালে মেয়েরা মজা পায় ঠিকই কিন্তু অর্গ্যাজম হওয়ার সম্ভাবনা ১% এর চেয়েও কম।

৭. লম্বা লিঙ্গের চেয়ে মোটা লিঙ্গ মজা বেশী। লম্বা লিঙ্গে বেশীরভাগ মেয়ে ব্যাথা পায়।

৮. মেয়েদের যৌনিতে সামান্য ভেতরেই খাজ কাটা গ্রুভ থাকে, লিঙ্গের নাড়াচাড়ায় ঐসব খাজ থেকে মজা তৈরী হয়। এজন্য বড় লিঙ্গের দরকার হয় না।

জানেন, ঠিক কতক্ষণ দীর্ঘ মিলন চান মেয়েরা?
সঙ্গম দীর্ঘ হোক, চান দম্পতিরা। মানসিক ও শারীরিকভাবে প্রস্তুত হন তাঁর। সঙ্গম শারীরিক প্রক্রিয়া হলেও, তার নেপথ্যে ক্রিয়াশীল থাকে মন। তাই মনের মিলন না হলে সঙ্গমের আনন্দই মাটি। শরীর নয়, মনই দীর্ঘস্থায়ী করে সঙ্গমের মুহূর্তকে। তার সঙ্গে অবশ্যই থাকে নারী ও পুরুষের শারীরিক সক্ষমতা। কিন্তু ঠিক কতটা দীর্ঘ সঙ্গম চান মহিলারা? পুরুষরাই বা কতটা সময় পছন্দ করেন?

সম্প্রতি এক সমীক্ষায় উঠে এল সে তথ্য। Saucydates।com নামে এক ওয়েবসাইট আয়োজন করে সমীক্ষার। সেই সমীক্ষার ফলাফল জানাচ্ছে, পুরুষদের তুলনায় নারীরাই বেশিক্ষণ সঙ্গম প্রত্যাশা করেন। সারা পৃথিবীর নারীরাই এ বিষয়ে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছিলেন। জানা যাচ্ছে, গোটা বিশ্বেই মহিলারা চান সঙ্গম হোক ২৫ মিনিট ৫১ সেকেন্ড মতো।

অর্থাৎ বেশ দীর্ঘক্ষণই কাটুক সঙ্গমে, এমনটাই চাওয়া তাঁদের। অন্যদিকে পুরুষরা কাছাকাছিই আছেন। তাঁদেরও দাবি, সঙ্গম হোক ২৫ মিনিটের মতোই। তবে কয়েক সেকেন্ডে নারীদের থেকে পিছিয়ে পড়েছে তারা। অধিকাংশ পুরুষই চেয়েছেন সঙ্গম হবে ২৫ মিনিট ৪৩ সেকেন্ডের। যা প্রতিক্রিয়া এসেছে, তার গড় করে এরকম সময়সীমাই দাঁড়াচ্ছে। তবে একটা বিষয় স্পষ্ট যে, পুরুষ ও নারী দু’জনেই চান সঙ্গম হোক দীর্ঘ।

কথা হচ্ছে, সারা বিশ্বের পুরুষ ও মহিলাদের কি এই প্রত্যাশা পূরণ হয়? এতটাই কি দীর্ঘায়িত হয় সঙ্গম? বাস্তবের তথ্য জানাচ্ছে, প্রত্যাশা থেকে অনেকটাই দূরে থাকতে হয়। এ ব্যাপারে সবথেকে এগিয়ে আছে ইউএসএ। মোটামুটি ১৭ মিনিট ৫ সেকন্ড মতো হয় তাঁদের সঙ্গমের মুহূর্ত। বছর একত্রিশের পুরুষরাই এই সময় পর্যন্ত সঙ্গম ধরে রাখতে সক্ষম হন। একই বয়সে ভারতীয় পুরুষরা আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রের ধারেকাছে আসে না প্রায়। উলটে বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে যৌনতায় পরিণতি বোধ আসে ভারতীয়দের।

দেখা যায় ৫০-৫১ বছরের ভারতীয় পুরুষদের সঙ্গমের সময়সীমা অনেকটাই আন্তর্জাতিক মানের। ব্রিটিশ পুরুষরা গোড়ার দিকে একটু কাঁচা থাকলেও, তিরিশের কোঠাতেই প্রার্থিত সময়সীমায় পৌঁছে যান। গ্লোবাল ট্রেন্ড বলছে, ইন্টারকোর্সের সময়সীমা বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বাড়তে থাকে বিশ্বের পুরুষদের। একটা সময় পরে গিয়ে অবশ্য তা কমেও যায়। তবে এই সমীক্ষা অন্তত জানান দিল, ঠিক কতটা দীর্ঘ সঙ্গম চান পুরুষ ও নারীরা। গোটা বিশ্বেই দম্পতিদের ক্ষেত্রে এই তথ্য সহায়ক হবে বলেই মনে করছে সমীক্ষাকারী সংস্থা।

About Admin Rafi

Leave a Reply