Friday, June 14

কুলিয়ারচর পৌর ভূমি অফিস সহায়কের বিরুদ্ধে ঘুষ দুর্নীতির অভিযোগ

ফারজানা আক্তার,কুলিয়ারচর উপজেলা প্রতিনিধি

কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচর পৌর ভূমি অফিস সহায়কের বিরুদ্ধে ঘুষ দূর্নীতির অভিযোগ পাওয়া গেছে। অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, প্রায় এক বছর আগে উপজেলার বড়খারচর গ্রামের আবুল হাসিমের ছেলে ধন মিয়া (৬০) জমি খারিজ করার জন্য কুলিয়ারচর পৌর ভূমি অফিসে গেলে অফিস সহায়ক মজলু মিয়া স্বল্প সময়ের মধ্যে জমির খারিজ করে দেওয়ার ব্যবস্থা করে দিবেন বলে ধন মিয়ার কাছে ১০ হাজার টাকা ঘুষ দাবী করেন। অল্প সময়ের মধ্যে জমির খারিজ পেয়ে যাবে এমন আশায় ধন মিয়া অনেক কষ্ট করে মজলু মিয়াকে ৭ হাজার টাকা ঘুষ দেন। টাকা নিয়ে মজলু মিয়া বিভিন্ন তালবাহানা করে জমির খারিজ করার ব্যবস্থা না করে দিয়ে এর কিছুদিন পর কুলিয়ারচর পৌর ভূমি অফিস থেকে বদলী হয়ে জেলার নিকলী উপজেলার শিংপুর ইউনিয়ন ভূমি অফিসে যোগদান করেন। কিন্তু মজলু মিয়া জমি খারিজের ব্যবস্থা না করে দিয়ে চলে গেলেও ধন মিয়ার টাকা ফেরত দেননি বলে জানা যায়। ধন মিয়া অভিযোগ করে বলেন, আমি গরীব ও লেখাপড়া না জানা মানুষ। আমার জমির খারিজ করে দেওয়ার কথা বলে মজলু মিয়া আমার নিকট থেকে ৭ হাজার টাকা নিয়ে প্রায় এক বছর যাবৎ ঘুরাচ্ছে। তাকে সরাসরি পাওয়ার জন্য তার গ্রামের বাড়ি কুলিয়ারচর পৌরসভার চারারবন গিয়ে দেখি আমার মত আরো অনেক ভূক্তভোগী মানুষ মজলু মিয়ার বাড়ির আঙ্গীনায় অপেক্ষা করছে। তাদের সকলে একই দাবী হয় আমাদের কাজ করে দিন, না হয় আমাদের টাকা ফেরত দিন। কিন্তু মজলু মিয়া তাদের কোন কথা উত্তর না দিয়ে বিভিন্ন অযুহাত দেখিয়ে পালিয়ে যায়। এর পর থেকে সে সকলের ধরা ছোঁয়ার বাইরে থাকেন। পরিবারের লোকদের কাছে মজলু মিয়ার মুটোফোনের নাম্বার চাইলে অথবা তার সাথে সাক্ষাতের কথা বললে তারাও দূর্ব্যবহার করে। ইতি পূর্বে যোগাযোগের জন্য যারা মজলু মিয়ার নিকট থেকে মোবাইল নাম্বার চেয়ে এনেছে তাদের হয় ভুল নাম্বার না হয় বন্ধ নাম্বার দিয়েছে।

Leave a Reply