Breaking News
Home / বাংলাদেশ / গরু ব্যবসায়ীদের কুপিয়ে দুই লাখ টাকা লুট

গরু ব্যবসায়ীদের কুপিয়ে দুই লাখ টাকা লুট

চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা উপজেলায় সড়কে ব্যারিকেড দিয়ে আবারও ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। এ সময় দুই গরু ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে দুই লাখ টাকা লুট করেছে ডাকাতরা।গতকাল সোমবার রাতে উপজেলার কৃষ্ণপুর গ্রামে এ ডাকতির ঘটনা ঘটে।ডাকাত সদস্যদের অস্ত্রাঘাতে গুরুতর আহত হয়েছেন নাসির উদ্দীন (৫২) ও আব্দুর রহিম (৫০) নামে দুই গরু ব্যবসায়ী। তাদের চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। খবর পেয়ে পুলিশ সদস্যরা ওই এলাকায় অভিযান শুরু করেছে। তবে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ডাকাতির সঙ্গে জড়িত কাউকে আটক করতে পারেনি পুলিশ।পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, আলমডাঙ্গা উপজেলার গোয়ালবাড়ি গ্রামের নাসির উদ্দীন ও পার্শ্ববর্তী রোয়াকুলি গ্রামের আব্দুর রহিমসহ বেশ কয়েকজন গরু ব্যবসায়ী ডুগডুগি পশুহাটে গরু বিক্রি করে নিজ গ্রামে ফিরছিল। রাত আনুমানিক আটটার দিকে তারা জেহালা ইউনিয়নের গোয়ালবাড়ি গ্রামের মাঠে পৌঁছালে ৮-১০ জনের সশস্ত্র একটি ডাকাত দল সড়কে ব্যারিকেড দিয়ে তাদের গতিরোধ করে। এ সময় ডাকাত সদস্যরা দুজন গরু ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে জখম করে।ডাকাতির কবলে পড়া নাসির উদ্দীন আরটিভি অনলাইনকে জানান, সোমবার দামুড়হুদার ডুগডুগি পশুহাটে গরু বিক্রি করে বেশ কয়েকজন ব্যবসায়ী আলমসাধুতে করে গ্রামে ফিরছিল। এরই মধ্যে ডাকাত সদস্যরা আমাদের জিম্মি করে আমার কাছ থেকে এক লাখ ৮২ হাজার ও রহিম নামে একজনের কাছ থেকে ২৫ হাজার টাকা লুট করে নিয়ে যায়। এ সময় আমাদের চিৎকারে গ্রামবাসী ছুটে আসলে ডাকাত সদস্যরা পালিয়ে যায়।পরে গ্রামবাসী তাদেরকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।আলমডাঙ্গা থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) গাজী শামিম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে আরটিভি অনলাইনকে জানান, ডাকাত সদস্যদের গ্রেপ্তারে অভিযান শুরু হয়েছে। তবে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত এখনও কাউকে আটক করা যায়নি।প্রসঙ্গত, গেল ২২ ফেব্রুয়ারি রাতেও একই উপজেলার মাদারহুদা গ্রামে সড়কে ব্যারিকেড দিয়ে গণডাকাতির ঘটনা ঘটে। ওই ঘটনায়ও ডাকাত সদস্যরা ব্যবসায়ীদের জিম্মি করে লুট করে চার লাখ টাকা।  কুপিয়ে জখম করে চার গরু ব্যবসায়ীকে।

About Saimur Rahman

Leave a Reply