Sunday, July 21

বরিশালে নোঙর করেছে ‘গঙ্গা বিলাস’

বিশ্বের দীর্ঘতম রিভার ক্রুজ ‘গঙ্গা বিলাস’ নোঙর করেছে বরিশালের কীর্তনখোলা নদীতে। এই প্রমোদতরীতে সুইজারল্যান্ড ও জার্মানির ২৮ জন পর্যটক রয়েছেন। বুধবার দুপুর আড়াইটায় বরিশালে এসে পৌঁছায় এই প্রমোদ তরীটি। বিকালে পর্যটকরা বরিশাল নগরীর বগুড়া রোডে থাকা ১২০ বছরের পুরনো এপিফানি গির্জা পরিদর্শন করেন।

জানা গেছে, এই নদী ক্রুজের সূচনা হয় গত ১৩ জানুয়ারি ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে। বারানসি থেকে পতাকা প্রদর্শনের পর গন্তব্যের উদ্দেশ্যে রওনা দেয় এই প্রমোদ তরী। ২১তম দিনে শুক্রবার গভীর রাতে বাংলাদেশের জলসীমায় পৌঁছায় এটি। অ্যান্টিহারায় ক্রুজ যাত্রীরা রাত্রিযাপনের পর শনিবার সকালে ক্রুজটি তার পরবর্তী গন্তব্যের উদ্দেশ্যে যাত্রা করে।

ওই দিন বিকালে মোংলা বন্দরে রিভার ক্রুজ সদস্যদের স্বাগত জানায় নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ ও বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতের হাইকমিশনার প্রণয় ভার্মা। ‘গঙ্গা বিলাস’ এর এই গুরুত্বপূর্ণ সফর দুই দেশের মধ্যে পর্যটনের সম্ভাবনা বৃদ্ধি করতে, জনগণের মধ্যে মেলবন্ধন জোরদার করতে এবং ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে সংযোগের নতুন পথ উন্মোচনের একটি বড় পদক্ষেপ হিসেবে প্রশংসিত হচ্ছে।

সুইজারল্যান্ড ও জার্মানির ২৮ জন পর্যটক বরিশালে আসলে তাদের স্বাগত জানান বরিশাল জেলা প্রশাসক জাহাঙ্গীর হোসেন, পুলিশ সুপার ওয়াহিদুল ইসলাম, টুরিস্ট পুলিশের এএসপি আবুল কালাম আজাদ, বিআইডব্লিউটিএ বরিশালের বন্দর ও পরিবহন বিভাগের উপ পরিচালক আবদুর রাজ্জাক।

বৃহস্পতিবার দুপুরে কীর্তনখোলা ত্যাগ করবে এই প্রমোদ তরী। এরপর টাঙ্গাইল, ঢাকা, সিরাজগঞ্জ এবং রংপুর হয়ে ১৬ ফেব্রুয়ারি আসামের ডিব্রুগড়ে প্রবেশ করবে। মোট ২৭ জন সুইজারল্যান্ডের নাগরিক এবং একজন জার্মান নাগরিককে নিয়ে প্রায় ৫১ দিন ধরে যাত্রা করবে এই জলযান। এটি তার যাত্রাপথে ২৭টি নদীর প্রণালির মধ্য দিয়ে ৩২শ কিলোমিটার পথ অতিক্রম করবে। শেষে আসামের ডিব্রুগড় থেকে আবারো একই পথ দিয়ে বারানসি ফিরে যাবে ‘গঙ্গা বিলাস’।

Leave a Reply