Wednesday, February 8

আফগানিস্তানে সেনা হাসপাতালে সন্ত্রাসী হামলা, নিহত ৩০

আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলে সেনাবাহিনী পরিচালিত একটি হাসপাতালে সন্ত্রাসী হামলা চালিয়েছে দুর্বৃত্তরা। এ হামলায়  অন্তত ৩০ জন নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। তবে সরকারি কোনো তথ্য পাওয়া যায় নি। বার্তা সংস্থা রয়টার্স বলেছে, অস্ত্রধারীদের মধ্যে কমপক্ষে একজন ছিল ডাক্তারের পোশাক পরা। এমন ছদ্মবেশ ধরে তারা ৪০০ শয্যাবিশিষ্ট সরদার মোহাম্মদ দাউদ খান হাসপাতালে হামলা চালায়। এ হাসপাতালের পাশেই অবস্থিত যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাস। সন্ত্রাসীরা হাসপাতালের ভিতরে প্রবেশ করেই এর নিরাপত্তা রক্ষীদের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। একজন নিরাপত্তা বিষয়ক কর্মকর্তা বলেছেন, হাসপাতালের কাছেই বিকট এক বিস্ফোরণের মধ্য দিয়ে হামলা শুরু হয়। এ সময় তিন থেকে পাঁচজন হামলাকারী তাদের স্বয়ংক্রিয় অস্ত্র, হাতবোমা নিয়ে হাসপাতালের ভিতরে প্রবেশ করে। তারা হাসপাতালের তৃতীয় ও চতুর্থ তলায় অবস্থান নিয়ে নিরাপত্তা রক্ষীদের সঙ্গে গুলি বিনিময়ে জড়িয়ে পড়ে। সেখানে পাঠানো হয় বিশেষ বাহিনীর কয়েকটি ইউনিটকে। তাদের সঙ্গে সংঘাত অব্যাহত ছিল। উল্লেখ্য, হাসপাতালটির ওই এলাকা ও এর আশপাশের এলাকার সড়কগুলো ভীষণভাবে সুরক্ষিত। কারণ, পাশেই রয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাস। ওদিকে এর আগেই সতর্কতা দেয়া হয়েছিল যে, এ বছরে তালেবানরা তাদের তৎপরতা বৃদ্ধি করতে পারে কাবুলে। নতুন এ হামলায় সেই আশঙ্কাই জোরালো হয়ে উঠেছে। হাসপাতালের একজন কর্মচারী আবদুল কাদের বলেছেন, তিনি একজন অস্ত্রধারীকে দেখতে পেয়েছেন। সে ছিল চিকিৎসকদের সাদা পোশাক পরা। ভিতরে প্রবেশ করে সে একটি স্বয়ংক্রিয় একে-৪৭ রাইফেল বের করে গুলি করা শুরু করে। এতে একজন রোগি ও হাসপাতালের একজন কর্মী নিহত হয়েছেন। তিনি এ সময় হাসপাতালের অন্যান্য অংশৈ গুলি বিনিময়ের শব্দ শুনতে পেয়েছেন। এ হামলার পর নিরাপত্তা রক্ষীরা হাসপাতালটির চারপাশের সব সড়ক বন্ধ করে দিয়েছেন। তবে তাৎক্ষণিকভাবে এ হামলার দায় কেউ স্বীকার করে নি।

Leave a Reply