Monday, February 6

উত্তাল সমুদ্রে ডুবে গেছে দুই জাহাজ, ২৮ নাবিক উদ্ধার

নিম্নচাপে সৃষ্ট উত্তাল সাগরের ঝড়ো বাতাসে সৃষ্ট তীব্র ঢেউয়ে চট্টগ্রাম বন্দরের বহির্নোঙ্গরে সিমেন্টের কাঁচামালবাহী দুইটি লাইটারেজ জাহাজ ডুবে গেছে। এ সময় দুই জাহাজের ২৮ জন নাবিককে উদ্ধার করা হয়েছে।

বন্দর সূত্রে জানা গেছে, ১২ জুন সোমবার বেলা ১১টার দিকে জালিয়াপাড়া তীরবর্তী গভীর সমুদ্রে ‘হাজী কায়েস’ এবং দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ভাটিয়ারি উপকূলের দিকে গভীর সমুদ্রে ‘অলিম্পিক-টু’ নামের জাহাজ দুইটি ডুবে যায়।

চট্টগ্রাম বন্দরের সদস্য (প্রশাসন) জাফর আলম জানান, ‘হাজী কায়েস’ নামের জাহাজটি বহির্নোঙ্গর থেকে এক হাজার ৭০০ মেট্রিক টন ক্লিংকার নিয়ে তীরের দিকে আসার পথে সাগরে ডুবে যায়। এ লাইটারেজটির মালিক মদিনা গ্রুপ।

অন্যদিকে ভাটিয়ারি তীরবর্তী গভীর সমুদ্রে বড় জাহাজ থেকে ক্লিংকার বোঝাই করার সময় ‘অলিম্পিক-টু’ নামের জাহাজটি ডুবে যায় বলে জানান লাইটারেজ শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক নবী আলম।

তিনি বলেন, প্রচণ্ড ঢেউয়ে জাহাজটি কাত হয়ে ডুবে যায়। জাহাজটিতে প্রায় এক হাজার ২০০ মেট্রিক টনের মতো ক্লিংকার ছিল। জাহাজটির মালিক অলিম্পিক সিমেন্ট লিমিটেড।

‘অলিম্পিক-টু’ জাহাজে ১৫ জন এবং ‘হাজী কায়েস’ জাহাজে ১৩ জন নাবিক ছিল এবং তাদের সবাইকে উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানান নবী আলম।

এদিকে এমভি অন্যন্যাসহ দুটি লাইটারেজ জাহাজ পতেঙ্গা বাঁধের সঙ্গে আটকে গেছে বলেও খবর পাওয়া গেছে।

পতেঙ্গা আবহাওয়া অফিসের আবহাওয়াবিদ সৈয়দা মিমি পারভিন জানান, বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট নিম্নচাপের প্রভাবে বৃষ্টিপাত হচ্ছে। গভীর সঞ্চালনশীল মেঘমালা সৃষ্টি হয়েছে। এর প্রভাবে আরো কয়েকদিন বৃষ্টিপাত হতে পারে। সাগর মাঝারি ধরনের উত্তাল রয়েছে। রোববার রাত থেকে টানা বৃষ্টির কারণে নগরীর বিভিন্ন এলাকায় জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে।

Leave a Reply