Monday, February 6

প্রতি রাতে এক গ্লাস খাবেন বউকে খুশি করতে পারবেন সারা রাত

ভিডীওতি দেখতে হলে পোস্টের নিছে চলে যান

এই ভিডিওটি অনলাইন ইউটিউভ থেকে নেওয়া হয়েছে।
এই ভিডিও নিয়ে কারো আপত্তি থাকলে এর দায়ভার ইউটিউব চ্যানেল নিবে।

যে ছয় কথা ভুলেও বলবেন না সঙ্গিনীকে !

যে কোনও সম্পর্ক ভাল রাখার ক্ষেত্রেই কিছু নিয়ম ও নীতি মেনে চলতেই হয়। কিন্তু মেয়েদের সঙ্গে সম্পর্ক ভাল রাখতে হলে বিশেষ কিছু নিয়ম মানা দরকার। মেয়েদের মন ও মানসিকতার কথা মাথায় রেখে তাদের সঙ্গে যিনি কথা বলতে পারেন, তিনিই জিতে নিতে পারেন মেয়েদের মন। সেক্ষেত্রে বিশেষ কয়েকটি কথা মেয়েদের না বলাই ভালো। সেগুলো কি? চলুন জেনে নিই:

১. ‘বা:, বেশ ভালো হয়েছে তোমার স্বাস্থ্য’: আপনি হয়তো প্রশংসাবাচক সুরেই কথাটা বলছেন, কিন্তু মেয়েরা ভাববেন, আপনি বলতে চাইছেন, ‘তুমি মোটা হয়ে গেছ।’ তাতে তাদের চটে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

২. ‘ঠিকঠাক’ : আপনার সঙ্গিনী যখন কোনও প্রস্তাব দিচ্ছেন বা কোনও বিষয়ে আপনার মতামত চাইছেন, যেমন ধরুন, তিনি নতুন পোশাকে সেজে বললেন, ‘কেমন লাগছে আমাকে?’ তখন আপনি যদি ক্যাজুয়ালি বলেন, ‘ঠিকঠাক’, তাহলে মেয়েটির মন ভেঙে যাওয়ার সম্ভাবনা প্রবল। তার বদলে একটু উৎসাহব্যঞ্জক কিছু বলুন, যেমন ‘দারুণ’ কিংবা ‘এক্সিলেন্ট’।
৩. ‘প্রিয়াঙ্কাকে সেদিন যা লাগছিল না!’: প্রিয়াঙ্কার জায়গায় সুমনা, মৌ বা অন্য যে কোনও মেয়ের নাম হতে পারে, কিন্তু নিজের বান্ধবীর সামনে অন্য কোনও মেয়ের প্রশংসা করাটা একটু বিপজ্জনক।

৪. ‘যাই হোক’: কোনও ঝগড়া বা তর্কের মাঝখানে এই কথাটি বলেছেন কি মরেছেন। মেয়েটি নির্ঘাৎ ধরে নেবেন, আপনি তার কথাকে ধর্তব্যের মধ্যেই আনছেন না, কিংবা তার কথাকে যুক্তিহীন বলে উড়িয়ে দিচ্ছেন।

. ‘তুমি যখন ঘুমের মধ্যে নাক ডাক, তখন তোমায় ভারি মিষ্টি লাগে’ : সত্যি সত্যি মিষ্টি লাগলেও বলবেন না এই কথা। কোনও মেয়েই চট করে স্বীকার করতে চান না যে, তিনি নাক ডাকেন।

৬. ‘শাড়িটার দাম কত গো?’: সত্যিই কি আপনি জানতে চান আপনার বান্ধবীর শাড়টির কত দাম? আর চাইলেও প্রশ্নটি না করাই ভালো। কারণ অনেক মেয়েই কিন্তু এই ধরনের প্রশ্নে বিব্রত বোধ করতে পারেন।

Leave a Reply