Sunday, February 5

হলি উৎসবের নামে কি হচ্ছে এসব!! মা-বোনদের ইজ্জত আর বাকি রইল না!-দেখুন ভিডিওতে

ভিডীওতি দেখতে হলে পোস্টের নিছে চলে যান

এই ভিডিওটি অনলাইন ইউটিউভ থেকে নেওয়া হয়েছে।
এই ভিডিও নিয়ে কারো আপত্তি থাকলে এর দায়ভার ইউটিউব চ্যানেল নিবে
একটি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলের প্রতিবেদনে দেখা যায়
– পথচারীদের, বিশেষ করে নারীদের ধরে ধরে রং লাগানো হচ্ছে৷ এক নারী তাঁর কর্মস্থলে যাচ্ছিলেন৷ আপত্তি সত্ত্বেও কর্মজীবী ওই নারীকে জোর করে রং দেয়া হয়৷
হিন্দুদের এই উৎসবে আমার আপত্তি নাই। এটা ওদের ধর্মীয় ব্যাপার। কিন্তু,এতে কেন অন্য ধর্মের মেয়েরা নিগ্রহ হবে? এটা সত্য যে ওখানে মুসলমান ছিল।অত্যন্ত কুরুচিপূর্ণ, নারী নির্যাতন ও পীড়নমূলক।
প্রশ্ন হচ্ছে, কেন মুসলমানরা এইসব উৎসবে যাবে? ঈদের দিন হিন্দুরা কি দল বেঁধে ঈদগাহে এসে কোলাকুলি করার জন্য দাড়িয়ে থাকে? জানি,কারো কাছে সঠিক উত্তর নেই।
কারণ,নিজেদের ব্যর্থতা হিন্দুদের উপর চাপিয়ে দেওয়া মুসলমানের সংখ্যায় বাংলাদেশে বেশী। ভারতে যেখানে হোলি পূজা নিষিদ্ধের দাবী উঠেছে , বড় বড় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে হোলি পূজা নিষিদ্ধ হয়েছে, সেখানে বাংলাদেশে কিভাবে হোলি পূজা চলতে পারে?
প্রকাশ্যে মুসলিম নারীদের বেইজ্জতি করে রং মাখানো হতে পারে? অবিলম্বে বাংলাশে হোলি পূজা বন্ধ করা হোক। এবং যেসব হিন্দু গত সোমবার ঢাকায় নারীদের উপর নিপীড়ন চালিয়েছে তাদেরকে গ্রেফতার করতে হবে।
কোন আইনে একজন নারী মা মেয়ের শরীরে এভাবে আক্রমণ করা হলো জানতে চাই ?

Leave a Reply