Breaking News
Home / ভিডিও / কক্সবাজার সি বীচে মেয়েদের অবস্থা দেখেন! হতবাক হয়ে যাবেন (ভিডিওসহ)

কক্সবাজার সি বীচে মেয়েদের অবস্থা দেখেন! হতবাক হয়ে যাবেন (ভিডিওসহ)

মেয়েদের শরীর ও আচরণের- বিপরীত লিঙ্গের প্রতি আকর্ষণ করার জন্য যখন আপনি নিজের শক্তিতে সবকিছু করেন, তখন আপনি জানতে পারেন না যে আপনার কিছু কাজ এবং আচরণের বিপরীত প্রভাব রয়েছে।

আসলে, আপনি বুঝতেও পারবেন না যে আপনি এমন একটি পদ্ধতিতে অভিনয় করছেন যা পুরুষদেরকে দূরে সরিয়ে দেয় কিন্তু আপনি যা করার চেষ্টা করছেন তা তাদের আকর্ষণ করার জন্যে ।

আমি জানি কিছু নারী তাদের কাজের এবং আচরণের ব্যাপারে অজ্ঞ যেগুলি কখনও কখনও পুরুষের প্রতি নেতিবাচকভাবে প্রতিফলিত হয়। উদাহরণস্বরূপ, যদি বিভিন্ন চুলের প্রোডাক্ট এবং বিভিন্নভাবে ববি পিন ব্যবহার করে যদি একটি মহিলা রুমে আসে।

এটি কি সব পুরুষের মনোযোগ আকর্ষণ করবে? হ্যাঁ, কিন্তু আপনি চান না। অধিকাংশ পুরুষ দীর্ঘ, আলগা, নরম এবং সিল্কি চুল পছন্দ করে, চটচটে চুলের স্প্রে এবং হার্ড জেল নয়।

এই অন্যান্য অভ্যাস তাদের জন্য বিরক্তিকর হতে পারে। আসুন এই তালিকায় একবার নজর দিন এবং এমন জিনিসগুলি জানুন যাতে পুরুষরা মহিলাদের প্রতি অনাকর্ষণীয় হয়।

১। খুব অহংকারী হওয়া !

প্রকৃতপক্ষে ভদ্রমহিলাগন, আপনাদের গর্ব এবং অহংকারের মধ্যে বিভেদ বুঝতে হবে। আপনার কৃতিত্ব এবং অর্জনের উপর গর্ব থাকা ভাল কিন্তু অন্যদের সামনে এটি সম্পর্কে অহংকারী হওয়া খুব খারাপ। এটা পুরুষদের জন্যে বিরক্তিকর।

২। বাজে ব্যক্তিগত স্বাস্থ্যবিধি

আসলে, এই একটি মৌলিক জিনিস! লিঙ্গ নির্বিশেষে, পরিষ্কারতা আসে যখন পুরুষদের এবং মহিলাদের উভয় কেই পরিষ্কার থাকতে হবে। তাদের মধ্যে বাজে ব্যক্তিগত স্বাস্থ্যবিধি অন্য ব্যক্তিকে সক্রিয় করে।

৩। কথোপকথনে নেতৃত্ব দিতে ব্যর্থ

হ্যা, ভাল! এটি একটি বিরল ঘটনা, তবে কিছু নারীর অস্তিত্ব রয়েছে যাদের একটি সুস্থ কথোপকথন চালাতে কম আগ্রহ রয়েছে। এটা তাদের পুরুষদের সাথে সম্পর্ক শেষ করে।

৪। আপনার প্রাক্তন সম্পর্কে সমস্ত সময় সমালোচনা!

আমাকে বিশ্বাস করুন, প্রতিটি মহিলার কিছু প্রত্যাশা আছে এবং যা সত্যিই তাদের প্রাক্তনদের সঙ্গে সম্পন্ন হয় না। তাদের অন্য পুরুষদের সামনে সেগুলো জাহির করা উচিৎ নয়। এই অতীতের ও সমালোচনা অভ্যাস যা আপনাকে অন্যান্য পুরুষদের সামনে অনাকর্ষণীয় করে তোলে ।

৫। অত্যধিক মেকআপ করা।

সত্যি। মেয়েরা! আমি জানি যে নারীরা পুরুষদের সন্তুষ্ট করার জন্য মেকআপ করে না। তারা নিজেদেরকে সন্তুষ্ট করার জন্য এটি করে থাকে কিন্তু জিনিসটি অনেক দূরে চলে যায়। এছাড়াও, আমার বিশ্বাস যে এটি সত্যিই পুরুষদের মুড অফ করে দেয়। অনেক মেকআপ সত্যিই কখনও কখনও কাজ করে না।

৬। বিরক্তিকর নাটক করা।

কোনও সন্দেহ নেই, যে এটিতে উভয় দিকই তিক্ত হয়ে ওঠে, তবে নারীদের এমন ক্ষতিকারক বৈশিষ্ট্যগুলি কখনও কখনও পুরুষদের উপর বোঝা হিসেবে কাজ করে।

৭। কারুর কথা না শোনা!

আল্লার দোহাই! গাধা হওয়া বন্ধ করুন, মেয়েরা। এমন আচরণ যেন আপনি সবকিছু জানেন, না কারো কথা শোনেন, আপনার থেকে ভালো কেউ জানেনা। এই সব বৈশিষ্ট্যগুলি পুরুষদের ভাল লাগেনা।

৮। যে সব নারী মনে করে তারা খুব শক্তিশালী!

উপরন্তু, মহান ধরনের নয়, এই ভদ্রমহিলা যারা বাড়িতে জিনিস ভেঙ্গে ফেলে শুধু যেহেতু সে তা ঠিক উপায়ে সাজাতে পারেনি। এটি ভদ্রমহিলার মধ্যে কুৎসিত বৈশিষ্ট্য এবং যা সত্যিই অনাকর্ষণীয় করে।

৯। স্পর্শ এবং আঘাতের সঙ্গে অত্যধিক হাসা!

আমি বলতে চাইছি আমি বুঝি যে আপনি আপনার ভালবাসা প্রকাশ করেন এভাবে হেসে। কিন্তু অত্যধিক হাসা তার জন্য বিরক্তিকর হতে পারে।

১০। বেশি পরিমাণে টার্ন আপ হওয়া।

এক কুক্কুট বিস্ফোরিত আওয়াজ এবং ক্লাবের স্পিকারের আওয়াজের তুলনায় জোরালো হয় । ভয়ানক! বিশেষ করে আপনার কানে কথা বলার সময়।

বি: দ্র : ই্উটিউব থেকে প্রকাশিত সকল ভিডিওর দায় সম্পুর্ন ই্উটিউব চ্যানেল এর । এর সাথে আমরা কোন ভাবে সংশ্লিষ্ট নয় এবং আমাদের পেইজ কোন প্রকার দায় নিবেনা। ভিডিওটির উপর কারও আপত্তি থাকলে তা অপসারন করা হবে। প্রতিদিন ঘটে যাওয়া নানা রকম ঘটনা আপনাদের মাঝে তুলে ধরা এবং সামাজিক সচেতনতা আমাদের লক্ষ্য এবং উদ্দেশ্য ।

আপনার আঙুলে এই লক্ষণটি রয়েছে? তাহলে নিশ্চিন্ত থাকুন নিজের ভবিষ্যৎ নিয়ে

লক্ষণশাস্ত্র এমন একটি বিদ্যা যা দেহের বিভিন্ন বাহ্যিক বৈশিষ্ট্যের ভিত্তিতে মানুষের অতীত ও ভবিষ্যৎ নিয়ে চর্চা করে থাকে। এই বিদ্যার ব্যাখ্যা অনুযায়ী, কোনও মানুষের শারীরিক গঠনের বিশ্লেষণের মাধ্যমেই জানা সম্ভব তার ব্যক্তিত্ব, ভূত ও ভবিষ্যৎ। এই বিদ্যা বলে, কড়ে আঙুলের গঠনেও নিহিত থাকে একজন মানুষের ব্যক্তিত্ব ও ভবিষ্যৎ। এবং কেউ চাইলে, নিজের কড়ে আঙুলের দিকে তাকিয়ে নিজেই জেনে নিতে পারেন নিজের ভবিষ্যৎ সম্পর্কে? কীভাবে? আসুন, জেনে নিই।

অন্য আঙুলের মতো কড়ে আঙুলেও থাকে তিনটি ভাগ (ছবির দিকে তাকান)। এই ভাগগুলিকেই বিশ্লেষণ করতে হবে। প্রথমেই লক্ষ্য করুন কড়ে আঙুলের তিনটি ভাগের কোনটির দৈর্ঘ্য কেমন। এবার আঙুলের ডগার উপরের দিক থেকে তিনটি অংশকে চিহ্নিত করা যাক যথাক্রমে ১,২,৩ নামে। এবার আসা যাক বিশ্লেষণে—

১. যদি ১ নম্বর অংশটি দীর্ঘ হয়: যদি আঙুলের উপরের ভাগটি অন্য অংশের চেয়ে বড় হয় তাহলে আপনি খুব সহজেই অন্যদের মন জয় করে নিতে পারেন। আপনার ভাষাগত দক্ষতা অসাধারণ, এবং আপনার পর্যবেক্ষণ ক্ষমতাও অতুলনীয়।

২. যদি ২ নম্বর অংশটি দীর্ঘ হয়: তাহলে অন্যদের সেবা ও সাহায্য করার মানসিকতা আপনার মধ্যে রয়েছে। ডাক্তার এবং নার্সদের মধ্যে সাধারণত এই অংশটি দীর্ঘ হয়।

৩. যদি ৩ নম্বর অংশটি দীর্ঘ হয়: এই ধরনের মানুষেরা সৎ ও সত্যবাদী হন। এঁদের কথা বলার দক্ষতা থাকে, পাশাপাশি মানুষের সঙ্গে মেলামেশাতেও এঁরা পটু হন।

৪. যদি ১ নম্বর অংশটি সবচেয়ে ছোট হয়: এই ধরনের মানুষেরা হন নার্ভাস প্রকৃতির, এবং মানসিকভাবে দুর্বল। পাশাপাশি বন্ধুবান্ধবরা এঁদের পছন্দ করেন না।

৫. যদি ২ নম্বর অংশটি সবচেয়ে ছোট হয়: এমন‌টা হলে আপনি জেদী এবং কিছুটা আলসে প্রকৃতির। জীবনে কোনওরকম পরিবর্তনের সঙ্গে মানিয়ে নিতে আপনার অসুবিধা হয়।

৬. যদি ৩ নম্বর অংশটি সবচেয়ে ছোট হয়: আপনি সহজ-সরল এবং বিশ্বাসী। আপনার একটু সতর্ক থাকতে হবে যে, কেউ যাতে আপনাকে চট করে বোকা বানাতে না পারে।

বি: দ্র : ই্উটিউব থেকে প্রকাশিত সকল ভিডিওর দায় সম্পুর্ন ই্উটিউব চ্যানেল এর । এর সাথে আমরা কোন ভাবে সংশ্লিষ্ট নয় এবং আমাদের পেইজ কোন প্রকার দায় নিবেনা। ভিডিওটির উপর কারও আপত্তি থাকলে তা অপসারন করা হবে। প্রতিদিন ঘটে যাওয়া নানা রকম ঘটনা আপনাদের মাঝে তুলে ধরা এবং সামাজিক সচেতনতা আমাদের লক্ষ্য এবং উদ্দেশ্য ।

About Admin Rafi

Leave a Reply