Breaking News
Home / ভিডিও / আজব গ্রাম যেখানে নারীদের সাথে জোর করে রাত কাটালেই বিয়ে – ভিডিওতে দেখুন

আজব গ্রাম যেখানে নারীদের সাথে জোর করে রাত কাটালেই বিয়ে – ভিডিওতে দেখুন

দেখুন আজব গ্রাম,যেখানে নারীদের সাথে জোর করে রাত কাটালেই বিয়েঃ আজব  এই পৃথিবী আজব তার রীতি। এস স্থানে যা ভীতি অন্য স্থানে তাই রীতি। েএক স্থানে যেটি ঘৃনিত কাজ অন্য স্থানে সেটিউ প্রশংশিত কাজ। এমন বৈপরীত্য অভাব নেই  পৃথিবীতে।

যেখানে সারা পৃথিবীতে মেয়েদের সাথে জোড় করে রাত কাটানো কিংবা  ধর্ষন আইনত দন্ডনীয় অপরাধ। তেমনই এক ন্যাক্কারজনক রিতী প্রচলিত আছে এই গ্রামে। এখানে যদি আপনি কাউকে বিয়ে করতে চান তাহলে আপনাকে তার সাথে জোড় করে রাত কাটাতে হবে।

যদি কোনভাবে আপনি একটি রাত কাটাতে পারেন কোন নারীর সাথে তাহলে পরের দিন পরিবারের সম্মতিতেই আপনাদের  বিয়ে দেয়া হবে। এমনটাই রীতি এই দেশে। শুনে অবাক হলেও  এমন রীতি প্রচলিত আছে পৃথিবীতে।

ইউটিউবে প্রকাশিত সকল ভিডিওর দ্বায়িত্ব সংশ্লিষ্ট চ্যানেলের। এ ব্যাপারে আমাদের সাইটের কোন দ্বায়িত্ব নেই।

ভিডিও দেখুন

বিশ্বের সবথেকে সুখী দেশগুলির মধ্যে অন্যতম ভুটান। এদেশের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য ও মানুষের মন, সবটাই বিশ্বের দরবারে প্রশংসার যোগ্য। কিন্তু সেই ভুটানেই এমন এক অদ্ভুত রীতির প্রচলন রয়েছে, যা শুনলে অবাক হয়ে যেতে হয়। ভয়ঙ্কর সেই রীতির নাম ‘বোমেনা’।

‘বোমেনা’ আসলে গভীর রাতের শিকার। কয়েক যুগ ধরে ভুটানে চলে আসছে এই প্রথা। মূলত পূর্ব ভুটান তথা প্রত্যন্ত অঞ্চলগুলিতেই এই রীতির প্রচলন রয়েছে। এই প্রথায়, পুরুষেরা রাতের অন্ধকারে মেয়ের সন্ধানে ঘোরে। মেয়েদের ঘরে ঢুকে যায় ও তাদের শারীরিক সম্পর্কে বাধ্য করে।

যদি পরের দিন সকাল পর্যন্ত ওই পুরুষ ওই মহিলার ঘরেই থাকে, তাহলে দুই পরিবারের সম্মতিতে তাদের বিয়ে দেওয়া হয়। কিন্তু যদি ভোরের আলো ফোটার আগেই ওই পুরুষ ঘর ছেড়ে বেরিয়ে যায়, তাহলে মহিলার পরিবারের তরফ থেকে কোনও দোষ দেওয়া যায় না।

এই প্রথা সত্যিই অনেককে অবাক করে দেয়, কারণ ভুটানকে মহিলাদের জন্য সুরক্ষিত জায়গা হিসেবেই গণ্য করা হয়। এই অদ্ভুত প্রথার জন্য অনেক সময়েই গর্ভবতী হয়ে পড়েন অনেক মহিলা ও তাদের সিঙ্গল মাদার হিসেবে থাকতে হয়। কিন্তু সামাজিক প্রথার বিরুদ্ধে কোনও প্রতিবাদ জানাতে পারেন না তাঁরা।

তবে পরিবার পাশে থাকায় মহিলাদের সন্তান মানুষ করতে কোনও অসুবিধা হয় না। সাধারণত এসব অঞ্চলে বেশিরভাগই যৌথ পরিবারের বাস। তবে দিনে দিনে নিউক্লিয়ার ফ্যামিলি তৈরি হওয়ায় অসুবিধায় পড়তে হচ্ছে সিঙ্গল মাদারদের। এছাড়া বার্থ সার্টিফিকেট, পাসপোর্ট ইত্যাদির ক্ষেত্রে বাবার পরিচয় নিয়ে সমস্যায় পড়তে হয়।

About Admin Rafi

Leave a Reply