Breaking News
Home / বিনোদন / ‘বিগ বস তামিল থ্রি’ তে কমল হাসান

‘বিগ বস তামিল থ্রি’ তে কমল হাসান

১৯৯৯ সালে ডাচ মিডিয়া টাইকুন ও টেলিভিশনের অনুষ্ঠান প্রযোজক দে মোল দর্শকদের জন্য নতুন ভাবনার একটা অনুষ্ঠান নিয়ে আসেন। নেদারল্যান্ডসের সেই টিভি শো শুরুতেই দর্শকদের মধ্যে ব্যাপক আগ্রহের জন্ম দেয়। সারা বিশ্ব থেকে তারকাদের এনে একটা ঘরে রাখা হয়। বাইরের জগতের সঙ্গে সেই ঘরের কোনো সংযোগ নেই। অনুষ্ঠানটির নাম ‘বিগ ব্রাদার’। সেই অনুষ্ঠানের আকাশছোঁয়া জনপ্রিয়তা দেখে ভারতে ২০০৬ সালে হিন্দি ভাষায় একটি রিয়েলিটি শো শুরু হয়, নাম ‘বিগ বস’। ‘বিগ ব্রাদার’-এর ভাবনার সঙ্গে এই অনুষ্ঠানের রয়েছে হুবহু মিল।

হিন্দি ভাষায় ‘বিগ বস’-এর ১২টা সিজন শেষ হয়েছে। হিন্দি ভাষার ‘বিগ বস’ যথেষ্ট জনপ্রিয়তা পায়। এরপর ভারতের অন্যান্য ভাষায় যেমন কান্নাড়া, বাংলা, তামিল, তেলেগু, মারাঠি ও মালায়ালাম ভাষায় শুরু হয় ‘বিগ বস’। আজ রাত আটটায় চেন্নাইভিত্তিক বিজয় টিভিতে শুরু হচ্ছে ‘বিগ বস তামিল থ্রি’। প্রথম দুটি সিজনের মতো এবারও জনপ্রিয় এই রিয়েলিটি শো উপস্থাপনা করবেন অভিনেতা ও রাজনীতিবিদ কমল হাসান।

শুরু থেকেই ব্যাপক জনপ্রিয় এই শোর ট্যাগলাইন, ‘এটা কেবল শো না, এটাই জীবন’। এই ট্যাগলাইন মানুষের ভেতর ব্যাপক রোমাঞ্চ সৃষ্টি করতে সক্ষম হয়। নতুন সিজনের ট্রেলারে কমল হাসানকে বলেছেন, ‘এখানে ছলচাতুরীর কোনো সুযোগ নেই, পুরোটাই সত্যি।’ অন্য সিজনগুলোর মতো এবারও বিভিন্ন সেক্টরের ১৬ জন তারকাকে বিগ বসের ঘরে রাখা হবে এবং অবশ্যই তাঁদের কাছে কোনো ফোন থাকবে না। এই শো চলবে ৬ অক্টোবর পর্যন্ত।

‘বিগ বস তামিল’-এর প্রথম সিজন দিয়েই ছোট পর্দার সঙ্গে যুক্ত হন বড় পর্দার বিশাল তারকা কমল হাসান।

এদিকে ‘বিগ বস তামিল’ বন্ধ করার জন্য হাইকোর্টে রিট করা হয়েছে। সেখানে আইনজীবী কে সুথহান অভিযোগ করেছেন, ‘কমল হাসানের উপস্থাপনায় এই শোতে অনেক অবমাননাকর দৃশ্য ও গালাগাল দেখানো হয়। সামাজিকভাবে কাণ্ডজ্ঞানহীন এই শো কেবল টিআরপি বাড়ানো আর অর্থ উপার্জনের উদ্দেশ্যে এসব দেখায়। তাই এটা পুরোপুরি বন্ধ করা উচিত।’ তবে এ ব্যাপারে হাইকোর্টের সিদ্ধান্তের ব্যাপারে কিছুই জানা যায়নি।

About Saimur Rahman

Leave a Reply