Sunday, February 5

দত্তক নেওয়া শিশুর লাশ মিলল পুকুরে

সিরাজগঞ্জের কাজিপুরে পুকুর থেকে উদ্ধার হয়েছে রাহাত নামে তিন বছরের দত্তক নেওয়া শিশুর লাশ। তার পরিবার এটিকে হত্যাকাণ্ড দাবি করছে।

সোমবার সন্ধ্যায় কাজিপুর উপজেলার গান্ধাইল ইউনিয়নের কালিকাপুর থেকে শিশুটির লাশ উদ্ধার করা হয়। রাহাত কাজিপুর সদর ইউনিয়নের নারানদি গ্রামের ইদ্রিস-লিপি দম্পতির দত্তক ছেলে ছিল।

কাজিপুর থানার ওসি শ্যামল কুমার দত্ত জানান, নারানদি গ্রামের ইদ্রিস আলী ও কালিকাপুর গ্রামের লিপি খাতুনের প্রায় ১৪-১৫ বছর আগে বিয়ে হয়। তারা উভয়েই ঢাকায় গার্মেন্টে কাজ করতেন। তাদের কোনো সন্তানাদি ছিল না। তিন বছর আগে লিপি তার এক সহকর্মীর সদ্যপ্রসূত সন্তান দত্তক নেন। তার নাম রাখেন রাহাত। শিশুটিকে লালন-পালন করাবস্থায় বেশ কিছুদিন ধরে ইদ্রিস-লিপি দম্পতি পারিবারিক কলহে জড়িয়ে পড়েন। এরই জের ধরে গত তিন মাস ধরে লিপি শিশু রাহাতকে নিয়ে তার বাবার বাড়ি কালিকাপুরে বসবাস শুরু করেন।

সোমবার বিকালে দত্তক নেওয়া শিশু রাহাত নিখোঁজ হয়। খোঁজাখুঁজির একপর্যায়ে বাড়ির পাশের পুকুর থেকে শিশুটির লাশ উদ্ধার করে থানায় খবর দেন স্থানীয়রা। খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে শিশুটির লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। বাবা ইদ্রিস আলী ও তার পরিবারের অভিযোগ শিশুটিকে হত্যা করা হয়েছে।

মঙ্গলবার লাশের ময়নাতদন্তের জন্য সিরাজগঞ্জ বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় ইউডি মামলা হয়েছে।

Leave a Reply