Monday, February 6

ফুলসজ্জার রাত্রে এই ভুলগুলি করবেন না , ৫ নাম্বার ভুলটি সকলেই করে থাকে ,জানুন কি…

ফুলসজ্জার রাত্রে- ভারত একটি রীতি নিয়মের দেশ আর এখানে সব ছোটো আর বড় অনুষ্টানের জন্যে অনেক রিতি আছে । আর যেগুলি সব অনেক বছর ধরে চলে আসছে ।আর এই সব গুলির মধ্যে বিয়ে হল সব থেকে বড় রিরী যেটি অনেক নিয়মের মাধ্যমে হয়ে থাকে ।

আর এটি নিয়ে সকলেই খুব উসাহিত থাকে । আর ফুলসজ্জা তাদের রিতী মধ্যে একটি । বিয়ের পর প্রথম রাত্রিকে ফুলসজ্জার রাত বলা হয়ে থাকে । আর এই রাত্রের পরে তাদের মনে অনেক স্বপ্নের জন্ম নেয় ।

আর এই রাত স্বামী আর স্ত্রীয়ের প্রথম রাত্রি । আর এর পর থেকে একসাথে তাদের জীবনের পথ চলা শুরু হয়ে থাকে । আর আমাদের এই সমাজে অনেক ছেলে বা যুবক এই ফলজ্জার রাত্রে এমন কিছু ভুল করে ফেলে যেগুলি তারা কোন দিনেই চাইবে না করতে । আর আজ আমরা আপনাদের সেই ভুল নিয়ে বলব ,

ফুলসজ্জার রাত্রি একে অন্যকে জানার জন্যে একটি রাত্রি । আর এই রাত্রে যদি কোন মেয়েকে তাঁর কিছুন দিনের আগের কথা জিজ্ঞাসা করে থাকে তাহলে সেই গুলি বলতে চায় না । আর তাঁর ফলে আপনার জিজ্ঞাসায় তাঁর আগের জীবনের কথা জিজ্ঞাসা করলে তাঁর খুব দুঃখ লাগতে পারে । আর তাই আগের জীবনের কথা জিজ্ঞাসা করা উচিত নয় ।

এই দুনিয়ায় কোন মানুষ একদম সঠিক হয় না । আর সকলেই মধ্যে কোন না কোন কিছু কম থাকে । তাই এই রাত্রে তাঁর এই কিছু কমতি জিনিস গুলিকে না ভেবে নিজের মধ্যে দুঃখের অনুভব না করায় ভালো । কারন এই রাত্রে আপনার সঙ্গী আপনার কাছ থেকে প্রেম আর সম্মানের কথা ভেবে থাকে ।

আর আপনার বিয়ের এই প্রথম রাত আপনার সঙ্গির সাথে খুব ভালো ভাবে কাটানো উচিত । আর সে যা বলবে তাঁর সব কথায় আপনি হ্যাঁ কিংবা না বলুন । আর তাঁর কথা গুলি সব কিছু ভালো ভাবে শুনতে থাকুন । আপনি যদি কথা গুলি না শোনেন তাহলে তাঁর মনে অন্য খারাপ জিনিসের উদয় হতে পারে ।

আপনারা সকলেই দেখেছেন স্বামী আর স্ত্রী তারা নিজের পরিবারকে খুব মেনে থাকে । আর অন্যের পরিবারকে নিজের থেকে কম মনে করে থাকে । আর সেই রাত্রে তাঁর পরিবারের লোকেদের খারাপ বললে আপনাদের সম্পর্ক শুরুতেই খারাপ প্রভাব পড়তে পারে ।আর তাই কারু চর্চা করা উচিত নয় ।

আর এই কথাটি সকলেই বলবে বিয়ের প্রথম রাত্রে ছেলে আর মেয়ে দুজনেই রোমান্সের মজা নিতে চায় । আর এই সময় যদি আপনি খুব তাড়াহুড়ো করে থাকেন তাহলে তাঁর নিজরে আপনি খুব খারাপ হয়ে যেতে পারেন । আর যদি নিজের সঙ্গিকে সন্তুষ্ট করতে চান তাহলে ধীরে রোমান্স করুন ।

Leave a Reply