Monday, February 6

এই স্থানে ২০ সেকেন্ড প্রেস করুন তারপর রেজাল্ট দেখুন ! বিশ্বাস করতে পারবেন না(ভিডিও)

বিজ্ঞান মানুষকে অনেক কিছুই শিখিয়েছে। আপনি যদি যেকোনো কিছুতেই ঔষধ খেতে ভালবাসেন তাহলে এই ভিডিওটি আপনাকে অনেক উপকৃত হবেন। আমাদের না জানা এমন অনেক কিছুই রয়েছে যার মাধ্যমে ঔষধ না খেয়েও সুস্থ হওয়া সম্ভব।

রেফ্লেক্সলজি নামে এমন এক বিজ্ঞান রয়েছে যার মাধ্যমে ঔষধ না খেয়েও আপনি সুস্থ হতে পারবেন। তবে আগে আপনাকে এর ব্যাবহারবিধি জানতে হবে।

ভিডিওতে দেখুন বিস্তারিত। ভিডিওটি দেখতে নিচে ক্লিক করুন।

ভিডিওটি পোষ্টের নিচে দেয়া আছে। ভিডিওটি দেখতে স্ক্রল করে পোষ্টের নিচে চলে যান।

আরো পড়ুনঃ

এই গরমে নিয়মিত আম খেলে কি হতে পারে জানেন?

চিকিৎসকদের মতে আমের শরীরে উপস্থিত অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং আরও বেশ কিছু কার্যকরি উপাদান শরীরের নানা কাজে লেগে থাকে। যেমন ধরুন…

১. ব্রণর প্রকোপ কমায়: বেশ কিছু কেস স্টাডিতে দেখা গেছে ত্বকের পরিচর্যায় এই ফলটিকে কাজে লাগালে ব্রণর সমস্যা তো কমেই, সেই সঙ্গে স্কিন টোনের উন্নতি ঘটতেও সময় লাগে না। তাই অল্প দিনেই যদি ফর্সা হয়ে উটতে চান তাহলে আম দিয়ে বানানো ফেস মাস্ক ব্যবহার করতে ভুলবেন না যেন! এক্ষেত্রে সারা মুখে ভাল করে আম লাগিয়ে মাসাজ করতে হবে। তারপর ১০ মিনিট অপেক্ষা করে ধুয়ে ফেলতে হবে মুখটা।

২. হজম ক্ষমতা বাড়ায়: আমের অন্দরে বিশেষ এক ধরনের এনজাইম উপস্থিত রয়েছে, যা খাবার হজম যাতে ঠিক মতো হয়, সেদিকে খেয়াল রাখে। তাই তো এই ফলটি খেলে হজমের সমস্যা মাথা তুলে দাঁড়ানোর সাহসই পায় না। প্রসঙ্গত, চিকিৎসকদের মতে আমের মধ্যে থাকা ফাইবারও এক্ষেত্রে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে।

৩. খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রা কমতে শুরু করে: যেমনটা আগেও আলোচনা করা হয়েছে আমে উপস্থিত ফাইবার, পেকটিন এবং ভিটামিন সি, কোলেস্টেরলের মাত্রা কমাতে বিশেষ ভূমিকা পলন করে থাকে। সেই সঙ্গে হার্টের স্বাস্থ্যের উন্নতিতেও বিশেষ ভূমিকা নেয়।

৪. শরীরে অ্যাসিডের ভারসাম্য বজায় রাখে: আমের মধ্যে থাকা টার্টেরিক, ম্যালিক এবং সাইট্রিক অ্যাসিড শরীরের অন্দরে “অ্যালকালাইন ব্যালেন্স” ঠিক রাখতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। আর যেমনটা আপনাদের সকলেরই জানা আছে যে শরীরকে সুস্থ রাখতে অ্যাসিডের ভারসাম্য ঠিক রাখাটা কতটা জরুরি।

Leave a Reply